এস এস সি পরিক্ষাথীদের বিদায় ও নতুনদের বরণ অনুষ্ঠান

জমশেদ অালী (শান্ত) দেবীনগর দ্বিমুখী মাধ্যমিক বিদ্যালয় কতৃক আয়োজিত এস এস সি পরীক্ষার্থীদের বিদায়,ও নতুনদের বরণ অনুষ্ঠান বৃহস্পতিবার সকালে স্কুল প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত হয়।বিদায়ী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, জেলা পরিষদের নব নির্বাচিত সদস্য মোঃআশরাফুল ইসলাম,সভাপতিত্ব করেন অত্র স্কুলের প্রধান শিক্ষক মোঃঅাব্দুল আজিজ,বিশেষ অতিথী হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দেবীনগর উপি চেয়ারম্যান মোঃআব্দু রাজ্জাক বিশ্বাস,সাবেক চেয়ারম্যান মোঃহাফিজুর রহমান,আ.ক.ম.সাহেদুল অালম বিশ্বাস,দিয়াড় মহাবিদ্যালয়ের অধক্ষ্য মোঃরুহুল আমিন,হেফজুল মাদ্রাসার অধক্ষ্য আলহাজ মোঃসাদিকুল ইসলাম,সমাজ সেবক ডাঃমোঃসফিকুল ইসলাম সহ আরও উপস্থিত ছিলেন অত্র স্কুলের শিক্ষকও ছাত্র-ছাত্রী বৃন্দ্র।অত্র স্কুলের বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক মোঃফরিদ উদ্দীনকে ও এস এস সি পরিক্ষায় অংশগ্রহণকারী ৬০ জন ছাত্র-ছাত্রীদের বিদায় দেওয়া হয় এবং ২৪০ জন নতুন ছাত্র-ছাত্রীদের বরণ করা হয়।বিদায়ী শিক্ষক মোঃ ফরিদ উদ্দীন তার দীর্ঘ ৪০ বছরের শিক্ষকতার সৃতিচারন করতে গিয়ে তিনি আবেগ ধরে রাখতে না পেরে কন্দনে ভেঙ্গে পড়েন। ১৯৪১ সালে প্রতিষ্ঠিত এই বিদ্যালয়টি শিক্ষার দিকে এগিয়ে থাকলেও গ্রাম অঞ্চলের কারনে অনেক সুযোগ সুবিধে থেকে বঞ্চিত। এই স্কুল থেকে শিক্ষা নিয়ে অনেকে দেশের বিভিন্ন অফিসে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব অধিষ্ঠিত অাছেন, যা দেশের সম্পদ।স্কুলের প্রধান শিক্ষক আব্দুল আজ্জি বলেন স্কুলের বিলডিং গুলো পুরাতন হওয়ায় বর্তমান বিলডিং এর বেহাল দশা। বিগত কয়েক মাস হল ৩ জন ছাত্রের মাথার উপরে ছাদের ইট খোসে পড়ে মাথায় রক্তক হয়ে পড়ে।কখন বিলডিং এর ছাদ ধসে পড়ে অাল্লাহ ভাল জানেন। অন্শিচয়তার মধ্যে ক্লাস নিতে হয়, শিক্ষদের। সদর ৩ আসনের সংসদ সদস্য ও চর অঞ্চলের অালোর দিশারী অাব্দুল ওদুদ বিশ্বাস প্রধান অতিথী হিসাবে বিদায় অনুষঠানে থাকার সদয় সম্মতি গ্যাপন করায় আমরা আনন্দিত ছিলাম তাকে সরাসরি বিলডিং এর বেহাল দশা দেখাতে পারব এবং তিনি অবশ্যই ভাল আস্বাস দিতেন কিন্তু তার ব্যস্ততার কারণে উপস্থিত হতে না পারায় তার পক্ষে উপস্থিত নব নির্বাচত জেলা পরিষদের সদস্য মোঃঅাশরাফুল হক কে আমাদের দূরদশার কথাগুলো সংসদ সদস্যের কাছে তুলে ধার জন্য অাবেদন জানান।প্রধান অতিথী সহ বিশেষ অতিথী গণ সকলেই অত্র স্কুলের ছাত্র ছিলেন। তারা বিদায়ী ছাত্র-ছাত্রীদের উদ্দেশে বলেন এই স্কুলের পূর্বে থেকে সুনাম রয়েছে।তোমাদেরকেই ফলাফলের মধ্যদিয়ে স্কুলের সুনাম ধরে রাখতে।অাগামী দিনের ভবিষ্যৎ তোমরা।পরর্বীতে নতুনদের ফুল দিয়ে বরণ করেন এবং প্রত্যকটি ক্লাসের ভাল ফলাফল অর্জনকারী ৫৯ জনের হাতে অতিথীরা পুরস্কার তুলে দেন।

Related posts

Leave a Comment