চাঁপাইনবাবগঞ্জে হিন্দু বীরমুক্তিযোদ্ধা পরিবারের মাটি অবৈধভাবে উত্তোলন

 চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার সদর উপজেলার পৌর ভূমি অফিসের অন্তর্গত রেহাইচর মৌজার ৩৫১ ও ৩৬২ নং আর.এস খতিয়ানের ৩৩১০, ৩৩১১, ৩৪০২, ৩৪০৩ ও ৩৪০৪ দাগের সম্পত্তি হিন্দু বীরমুক্তিযোদ্ধা মৃত শ্রী নন্দ দুলাল, পিতা-ভবেশ চন্দ্র মন্ডল, মাতা- বিনাপানি দাসি, সাং- চরজোতপ্রতাপ (শিবতলা), উপজেলা- চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর, জেলা- চাঁপাইনবাবগঞ্জ এর পিতা ও মাতার নামে রেকর্ডীয় সম্পত্তি। মুক্তিযোদ্ধা দেশ স্বাধীন করলে কী হবে? সংখ্যালঘু হওয়া যে, তার আজন্ম পাপ। গোলাম কিবরিয়া, পিতা- মৃত হেরাশ উদ্দীন, সাং- বারঘরিয়, ভাতিজা- নয়ন, পিতা- মৃত সাবুরিয়া (শান্ত), সাং- মসজিদ পাড়ার নজর পড়েছে এই সম্পত্তির উপর। সাথে রয়েছে সালাম, পিতা-মৃত আমজাদ আলী, সাং- বারঘরিয়ার মতো ভরাট। যার বিরুদ্ধে থানায় আদালতে বহু
অভিযোগ, রয়েছে দূর্নীতি দমন কমিশন মামলায়।অন্য পক্ষে হিন্দু পরিবারটির সদস্যরা অসহায় হয়ে ২০১৪ সালের দুই জামাতা সহ আমমোক্তার নিয়োগ দেন। তারাও বর্তমানে এই বৃহত্তর শক্তির হুমকির সম্মখিন। সম্মখিন মিথ্যে মামলায় ফাসিয়ে দেওয়ার মত চক্রান্তের, নজিরও রয়েছে। যেমন- ২০১৬ সালে গোলাম কিবরিয়া অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট, চাঁপাইনবাবগঞ্জ আদালতে ৪ পি/২০১৬ মিথ্যা মামলা আনায়ন করে হয়রানির পর চাতুরির মাধ্যমে তুলে নেয়া।বর্তমানে সালামের মিথ্যে টাকা ছিন্তায়ের অভিযোগ। এই বৃহৎ শক্তি বেশ কিছুদিন হতে ভাড়াটিয়া গোন্ডা দিয়ে আইনকে বৃদ্ধা আঙ্গুল দেখিয়ে জামাতা রায় এবং শ্রী পবিত্র চন্দ্র ভাস্কর সহ আমমোক্তারগণকে নির্যাতন করে মাটি দখলের চেষ্টায় রয়েছে। প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে জি.ডি অভিযোগ, এজাহার সহ হিন্দু
বীরের সম্পত্তি রক্ষায় জরুরী ব্যবস্থা গ্রহণের আবদেন করে যোগাযোগ করলে সকলে সদর আসনে এম.পি মহোদয়ের কাছে যেতে বলে। তাহলে এরা কার কাছে যাবে? মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নিকট প্রশ্ন? হিন্দু বীরমুক্তিযোদ্ধার পরিবারের জমি কে বাঁচাবে? বর্তমানে চলছে মেশিন দিয়ে মাটি কেটে লুটপাট।

Please follow and like us:

Related posts

Leave a Comment