৯০ রানের বিশাল জয় টাইগারদের

0

ঐতিহাসিক শততম টেস্টের পারফরমেন্সের ধারাবাহিকতা অব্যহত রাখল বাংলাদেশ। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে ৯০ রানের বিশাল জয় পেয়েছে টাইগাররা। টাইগারদের ছুড়ে দেয়া পাহাড়সম ৩২৫ রানের লক্ষ্যকে তাড়া করতে নেমে ২৩৪ রানে থেমে যায় লঙ্কানদের ইনিংস। ফলে ৯০ রানের জয়  বিশাল জয় পেয়েছে বাংলাদেশ।

লঙ্কানদের ইনিংসে বল হাতে আঘাতের শুরু করেন চোট কাটিয়ে প্রথম ম্যাচ খেলতে নামা অধিনায়ক মাশরাফি। ইনিংসের তৃতীয় বলেই দানুশকা গুনাথিলাকাকে এলবিডাব্লিউয়ের ফাঁদে ফেলেন ম্যাশ। ০ রানেই লঙ্কানদের প্রথম উইকেটের পতন ঘটে। ৬ষ্ঠ ওভারের শেষ বলে সাফল্য পান মিরাজ। তার বলে বদলি ফিল্ডার শুভাগত হোমের তালুবন্দী হন কুশল মেন্ডিস (৪)। এটি অভিষিক্ত মিরাজের প্রথম ওয়ানডে উইকেট। মিরাজের পর আক্রমণে এসেই ওভারের শেষ বলে লঙ্কান দলপতি উপুল থারাঙ্গাকে (১৯) মাশরাফির ক্যাচে পরিণত করেন স্পিডস্টার তাসকিন।

দ্রুত তিন উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে যাওয়া শ্রীলঙ্কাকে পথ দেখাচ্ছিল দিনেশ চান্দিমাল এবং অ্যাশলে গুনারত্নের ৫৬ রানের জুটি। শেষ পর্যন্ত বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান গুনারত্নেকে ফিরিয়ে এই জুটি ভাঙেন। ৬২ বলে ক্যরিয়ারের ২১তম হাফ সেঞ্চুরি পূরণ করেন চান্দিমাল। ক্রমেই বিপজ্জনক হয়ে ওঠা লঙ্কান উইকেটকিপার ব্যাটসম্যানকে নিজের দ্বিতীয় শিকারে পরিণত করেন মিরাজ। তার বলে উইকেটের পেছনে সৌম্য সরকারের দারুণ ক্যাচে পরিণত হন ৭০ বলে ৬ বাউন্ডারিতে ৫৯ রান করা চান্দিমাল।

চান্দিমালের বিদায়ের পর হাত খুলে মারতে শুরু করেছিলেন মিলিন্দা শ্রীবর্ধনা। তাকে ব্যাক্তিগত ২২ রানে শুভাগত হোমের ক্যাচে পরিণত করে প্রথম শিকার ধরেন কাটার মাস্টার মুস্তাফিজ। আউট হওয়ার আগের বলে বিশাল এক ছক্কা হাঁকান তিনি। এরপর পাথিরানাকে (৩১) মাহমুদ উল্লাহর ক্যাচে পরিণত করে দ্বিতীয় শিকার করেন মাশরাফি। এর আগে টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে তামিম ইকবালের দুর্দান্ত সেঞ্চুরিতে ভর করে ৫ উইকেটে ৩২৪ রানের পাহাড় গড়ে বাংলাদেশ।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

ব্রেকিং নিউজঃ