অষ্টম শ্রেণি পাস ছাড়া ড্রাইভিং লাইসেন্স নয়

গাড়ি চালানোর জন্য চালকের কমপক্ষে অষ্টম শ্রেণি পাস হতে হবে। আর চালকের সহযোগীদের (কনট্রাকটর) কমপক্ষে পঞ্চম শ্রেণি পাস লাগবে। এমন আরও কিছু বিধান যুক্ত করে সড়ক পরিবহন আইন ২০১৭-এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। দুর্ঘটনার জন্য শাস্তি আগের মতোই দণ্ডবিধি অনুযায়ী দেওয়ার বিধান রাখা হয়েছে।

আজ সোমবার সচিবালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে এই আইনের খসড়ার অনুমোদন দেওয়া হয়। বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম সংবাদ ব্রিফিংয়ে এই সিদ্ধান্তের কথা জানান। তিনি বলেন, প্রস্তাবিত আইনে গাড়ি চালানোর সময় মোবাইল ফোন ব্যবহার করা যাবে না। যদি কেউ তা করে, তাহলে এক মাসের কারাদণ্ড ও পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা দিতে হবে।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, নতুন করে গাড়ি চালনায় ২৫টি নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। আমলযোগ্য অপরাধ হলে পরোয়ানা ছাড়াই পুলিশ গ্রেপ্তার করতে পারবে। ড্রাইভিং লাইসেন্স ছাড়া কেউ গাড়ি চালাতে পারবেন না। যদি কেউ তা করেন, তাহলে ছয় মাসের কারাদণ্ড বা ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হবে। আর কনট্রাকটরের লাইসেন্স না থাকলে এক মাসের কারাদণ্ড অথবা ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হবে। কনট্রাকটরদের লাইসেন্স দেবে বিআরটিএ।

মোহাম্মদ শফিউল আলম বলেন, ফিটনেসবিহীন গাড়ি চালালে এক বছর কারাদণ্ড বা এক লাখ টাকা জরিমানা গুনতে হবে। আর সড়কে দুটি গাড়ি যদি পাল্লা দিয়ে (রেসিং) চালানোর সময় দুর্ঘটনা ঘটে, সে ক্ষেত্রে তিন বছরের কারাদণ্ড অথবা ২৫ লাখ টাকা জরিমানার বিধান রাখা হয়েছে। তবে দুর্ঘটনার জন্য মৃত্যু বা অন্যান্য ক্ষেত্রে আগের মতোই দণ্ডবিধি অনুযায়ী শাস্তির বিধান রাখা হয়েছে। অর্থাৎ, কেউ যদি গাড়ি চালিয়ে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে নরহত্যা করে, তাহলে ৩০২ ধারা অনুযায়ী শাস্তি দেওয়া হবে। আর মৃত্যু নয়, এমন ঘটনায় ৩০৪ ধারা অনুযায়ী সাজা দেওয়া হবে। শুধু দুর্ঘটনা হলে সর্বোচ্চ তিন বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হবে।

এ ছাড়া আজকের সভায় বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউট আইন ২০১৭ এবং আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট (সংশোধন) আইন ২০১৭-এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

Please follow and like us:

Related posts

Leave a Comment