অবশেষে মৃত্যুর সাথে লড়াইয়ে হেরে গেলেন র‌্যাবের গোয়েন্দা প্রধান

অনলাইন ডেস্কঃ সিলেটে বোমা বিস্ফোরণে আহত র‌্যাবের গোয়েন্দা শাখার প্রধান লেফটেন্যান্ট কর্নেল মোহাম্মদ আবুল কালাম আজাদের মৃত্যু হয়েছে।

র‌্যাবের মুখপাত্র মুফতি মাহমুদ খান সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার রাত ১২টা ৫ মিনিটে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালের চিকিৎসকরা আজাদকে মৃত ঘোষণা করেন।

সিঙ্গাপুর থেকে ফিরিয়ে আনার পর আবুল কালাম আজাদকে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে রাখা হয়েছিল।

সিলেটে জঙ্গি আস্তানার কাছে বোমা বিস্ফোরণে আহত র‌্যাবের গোয়েন্দা শাখার প্রধান লেফটেন্যান্ট কর্নেল আবুল কালাম আজাদকে দেশে ফিরিয়ে আনা হয়।

এর আগে গত রবিবার বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ১১টায় লে. কর্নেল আজাদকে সিঙ্গাপুরে মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

বুধবার সকালে হাসপাতালটিতে তার চিকিৎসায় গঠিত বোর্ড বৈঠক করে দেশে ফেরত পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেন।

তিনি বলেন, “বুধবার রাত সাড়ে আটটায় তাকে বহন করা এয়ার অ্যামবুলেন্সটি হযরত শাহজালাল বিমানবন্দরে অবতরণ করে। তাকে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।”

এর আগে মঙ্গলবার লে.কর্নেল আবুল কালাম আজাদের পরীক্ষা-নীরিক্ষার রিপোর্ট চিকিৎসকদের বোর্ড পর্যালোচনা করে। তার চিকিৎসায় গঠিত বোর্ড আরো কিছু পরীক্ষা করতে দেয়। বুধবার সকালে ঐ রিপোর্টগুলো পর্যালোচনা করে চিকিৎসকরা চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত দেন।

সিঙ্গাপুরে মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালের বিশ্ববিখ্যাত নিউরোসার্জন ডা. লি কিমের অধীনে চিকিৎসাধীন ছিলেন র‌্যাবের এই চৌকস কর্মকর্তা। তার চিকিৎসার জন্য মাউন্ট এলিজাবেথ হসপিটাল কর্তৃপক্ষ একটি বোর্ড গঠন করেছিল।

গত ২৫ মার্চ শনিবার সিলেটের শিববাড়ির আতিয়া মহল বাড়িতে জঙ্গিবিরোধী অভিযানস্থলের কাছাকাছি জঙ্গিদের বোমার বিস্ফোরণে র‌্যাবের গোয়েন্দা শাখার প্রধান লে.কর্নেল আবুল কালাম আজাদ গুরুতর আহত হন। বিস্ফোরিত বোমার একটি স্প্রিন্টার লে. কর্নেল আজাদের এক চোখ দিয়ে প্রবেশ করে মস্তিষ্কে পৌঁছে যায়। ওই দিন রাতে হেলিকপ্টারে করে তাকে সিলেট থেকে ঢাকায় সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসা দেয়া হয়। এরপর উন্নত চিকিৎসার জন্য গত রবিবার রাত ৮টায় এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে তাকে সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

Related posts

Leave a Comment