চাঁপাইনবাবগঞ্জের সন্তান র‌্যাব গোয়েন্দা প্রধানের মৃত্যুতে শোকসভা

র‌্যাব গোয়েন্দা প্রধান চাঁপাইনবাবগঞ্জের বীর সন্তান লে.কর্নেল আবুল কালাম আজাদের মুত্যতে তাঁর নিজ উপজেলা শিবগঞ্জের বিভিন্ন মসজিদে শুক্রবার জুম্মা নামাজ শেষে বিশেষ দোয়া, শোকসভা ও গায়েবানা জানাজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিকেলে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা পরিষদ সদস্য শাহিদা আখতারের উদ্যোগে মনাকষা ইউনিয়নের সাহাপাড়া দাখিল মাদ্রাসা মিলনায়তনে মাদ্রাসা সুপার মওলানা আব্দুর রহমানের সভাপতিত্বে শোক সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় উপস্থিত ছিলেন,এসডিবি উচ্চ বিদ্যালয়ের সহ.শিক্ষক মাইনুর রহমান,বিনোদপুর কলেজ প্রভাষক সফিকুল ইসলাম, তারাপুর স্কুল এ্যান্ড কলেজ শিক্ষক তাইফুর রহমান,এনাামূল হক প্রমূখ।

আলোচনায় শাহিদা আকতার বলেন, জঙ্গি গোষ্ঠীর হামলায় দেশপ্রেমিক লে.কর্নেল আবুল কালাম আজাদের নিহতের ঘটনার মধ্যে দিয়ে আমাদের সচেতন হওয়ার সময় এসেছে। যে কোন মুল্যে জঙ্গিদের দমন করে দেশ ও ধর্মকে রক্ষা করতে হবে। সভাপতির বক্তব্যে মাওলানা আব্দুর রহমান বলেন, কোন ব্যাক্তি যদি জীবনে একবারও ইমানের সঙ্গে কালেমা পাঠ করে থাকেন, তবে তাকে কাফের বলা বা হত্যা করা কোরআন বা হাদিসের আলোকে স¤পূর্ণ অবৈধ। লে.কর্নেল আজাদের চাচাতো ভাই নজরুল ইসলাম জানান, আবুল কালাম আজাদ খুব সহজ,সরল ও দানশীল ব্যাক্তি ছিলেন।

তাঁর অন্তিম ইচ্ছে ছিল চাকুরী শেষে গ্রামের বাড়ি মনাকষা ইউনিয়নের সাহাপাড়ায় বসবাস করা এবং জনসেবামূলক কাজে নিজেকে নিয়েজিত করা। তিনি বলেন, আবুল কালাম আজাদের পিতা মৃত. রেজাউল ইসলাম চাকুরীর সুবাদে ঢাকাতেই পরিবার নিয়ে স্থায়ী হন। তবে তাঁরা কয়েক বছর পরপর দেশের বাড়ীতে আসতেন। মাগরিবের নামাজ পর সাহাপাড়া জামে মসজিদে মওলানা আব্দুর রহমানের উদ্যোগে সহস্রাধিক মুসল্লীর উপস্থিতিতে লে.কর্নেল আজাদের গায়েবানা জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

Please follow and like us:

Related posts

Leave a Comment