ভোলাহাটে সেফটি ট্যাঙ্কে পড়ে বিষাক্ত গ্যাসে নিহত ১

চাঁপাইনবাবগঞ্জের ভোলাহাটে সেফটি ট্যাঙ্কে কাজ করতে নেমে  ট্যাংকে পড়ে একজন নিহত ও একজন আহত হয়েছে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জের ভোলাহাটে সেফটি ট্যাংকে কাজ করতে নেমে নাজির হোসেন (২৫) নামে একজন রাজমিস্ত্রী নিহত ও কাজেম আলী (৩৫) নামে অপর এক মিস্ত্রী আহত হয়েছেন। শনিবার সন্ধ্যায় উপজেলার গোহালবাড়ী ইউনিয়নের সুরানপুর বীরশ্বরপুর গ্রামে খোরসেদ আলীর ছেলে রহমত আলীর বাড়ীতে দূর্ঘটনাটি ঘটে।

নিহত নাজির হোসেন উপজেলার চরধরমপুর গ্রামের আজিজুল ইসলামের ছেলে। আহত কাজেম আলী বীরশ্বরপুর গ্রামের ইসরাফিলের ছেলে। তাঁকে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। সেফটি ট্যাংকে জমা বিষাক্ত গ্যাসে ও অক্সিজেনের অভাবে দূর্ঘটনাটি ঘটে বলে ধারনা করা হচ্ছে।

বাড়ীওয়ালা রহমত আলীর স্ত্রী ও এলাকাবাসী জানান, ১৫দিন পূর্বে সেফটি ট্যাংকটি নতুন ভাবে নির্মাণ করা হয়। কিন্তু এর ভিতরে সাটারিং-এর কাঠ থাকায় মিস্ত্রীরা সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে কাঠগুলো খোলার জন্য আসে। প্রথমে নাজির ট্যাংকে নেমে বিষাক্ত গ্যাস ও অক্সিজেনের অভাবে নি:স্বাস নিতে অসুবিধে হওয়ায় চিৎকার শুরু করেন।

এ সময় তাঁকে বাঁচাতে হেডমিস্ত্রী কাজেম ট্যাংকে নামলে তিনিও আক্রান্ত হয়ে অজ্ঞান হয়ে পড়েন। পরে এলাকাবাসী দুজনকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেস্কে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক শকিল আহমেদ নাজিরকে মৃত ঘোষনা করেন। ভোলাহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মহসিন আলী দূর্ঘটনাটি নিশ্চিত করেছেন। তবে এ ব্যাপারে রবিবার বিকেল পর্যন্ত থানায় কেউ কোন অভিয়োগ করেনি বলে জানান তিনি।

Related posts

Leave a Comment