চাঁপাইনবাবগঞ্জে ছাত্রীর শ্লীলতাহানির ঘটনায় বিক্ষোভ, শিক্ষকের কুশপুত্তলিকা দাহ

চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলায় মাদ্রাসা ছাত্রীর শ্লীলতাহানির অভিযোগে মনাকষা আ.ন.ক. কারিগরি কামিল মাদ্রাসার আরবীর প্রভাষক নিয়াজ উদ্দিনের বিচারের দাবিতে বুধবার বিক্ষোভ মিছিল ও প্রভাষকের কুশপুত্তলিকা দাহ করেছে এলাকাবাসী। সকালে মাদ্রাসার সামনে থেকে বিক্ষোভ মিছিল শুরু হয়ে এলাকার বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে মাদ্রাসার সামনে ফিরে এসে কুশপুত্তলিকা দাহ করে। এতে অংশ নেয় মনাকষা ইউনিয়নের চৌকা, সাতরশিয়া ও টোকনা গ্রামবাসী।

এ ব্যাপারে মাদ্রাসা পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি তোহিদুল আলম বলেন, এলাকাবাসী ও শিক্ষার্থীদের আন্দোলন, বিক্ষোভ ও অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত সাপেক্ষে গত শুক্রবার সকালে মাদ্রাসা পরিচালনা পর্ষদের জরুরি সভায় নিয়াজউদ্দিনকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে। সেই ষাথে কেন তাঁকে স্থায়ীভাবে বরখাস্ত করা হবে না মর্মে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়েছে। নোটিশ প্রাপ্তির এক সপ্তাহের মধ্যে জবাব দিতে বলা হয়েছে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, গত ৫ এপ্রিল দুপুরে শিবগঞ্জ উপজেলার সাতরশিয়া এলাকার একটি বাড়িতে মনাকষা আ.ন.ক. কারিগরি কামিল মাদ্রাসার এক ছাত্রীর (দাখিল পরীক্ষার্থী) শ্লীলতাহানির সময় মাদ্রাসার প্রভাষক নিয়াজ উদ্দিনকে হাতেনাতে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে এলাকাবাসী। পরে উভয় পক্ষের অভিভাবকের সম্মতিতে তাঁদের থানা থেকে ছেড়ে দেয়া হয়।

এ ব্যাপারে শিবগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাবিবুল ইসলাম জানান, তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় আনা হয়েছিল। জিজ্ঞাসাবাদের পর উভয়পক্ষের অভিভাবকের সম্মতি ও উপস্থিতিতে ছেড়ে দেওয়া হয়। এ ব্যাপারে মেয়ে পক্ষ কোন অভিযোগ করেনি। কিন্তু এলাকাবাসী প্রচলিত আইনে শিক্ষকের শাস্তির দাবীতে সপ্তাহ ধরে আন্দোলন করছে। বুধবার বিক্ষোভে উত্তেজনা লক্ষ করা গেছে।

Please follow and like us:

Related posts

Leave a Comment