নাটোরে প্রেমিকের বাড়িতে বিয়ের দাবীতে প্রেমিকার অনশন, দশ দিনের আল্টিমেটাম

0

নাটোরের নলডাঙ্গা উপজেলায় বিয়ের দাবীতে প্রেমিকের বাড়িতে অনশনের পর দশ দিনের মধ্যে বিয়ে করার অঙ্গীকারনামা করে প্রেমিকা লাকি খাতুন কে বাড়ি নিয়ে গেছে তার পরিবার।

শুক্রবার সন্ধ্যায় উপজেলার শেখপাড়া গ্রামে প্রেমিক আখরুজ্জামান রেন্টুর বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। আখরুজ্জামান রেন্টু শেখ পাড়া গ্রামের সমজান আলীর ছেলে ও প্রেমিকা লাকী খাতুন (২৪) রাজশাহী জেলার বাগমারার তাহেরপুর বাজার পাড়ার ফজলু সরদারের মেয়ে। আখরুজ্জামান রেন্টু হেলথ স্বাস্থ্য সহকারী হিসেবে রামশাকাজিপুর এলাকায় কর্মরত ও লাকী খাতুন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রাষ্ট বিজ্ঞান বিষয়ে মার্স্টাস পাশ করেছে।

এলাকাবাসী ও থানা সূত্রে জানা যায়, দেড় বছর আগে আখরুজ্জামান রেন্টুকে বিয়ে দেয়ার জন্য তার পরিবার লাকি খাতুনকে দেখতে গিয়ে দুইজনার মধ্যে পরিচয় ঘটে। পারিবারিকভাবে তাদের তখন বিয়ে না হলেও দুইজনার মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। প্রেমিকা লাকী খাতুনের ভাষ্য তাকে নাটোর বিসমিল্লাহ হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে প্রেমিক আখরুজ্জামান রেন্টু চেতনানাশক ট্যাবলেট খাইয়ে অনৈতিক মেলামেশা করে। পরে বিয়ের জন্য চাপ দিলে প্রেমিক রেন্টু তালবাহানা শুরু করে। এ নিয়ে তাদের দুই জনার মধ্যে ঝগড়াও হয়।

প্রেমিক আখরুজ্জামান রেন্টু অন্য আরেকটি মেয়ের সাথে সম্পর্ক তৈরি করে বিয়ে করার জন্য চেষ্টা করছে এ খবর জানতে পেরে গত শুক্রবার (২৮ এপ্রিল) প্রেমিকা লাকী খাতুন তার বাড়িতে বিয়ের দাবীতে অনশন শুরু করে। এ সময় প্রেমিক আখরুজ্জামান রেন্টু পালিয়ে যায়। বিয়ে না করলে প্রেমিকা লাকী আত্মহত্যা করার হুমকি দেয়। এ নিয়ে শুক্রবার সন্ধ্যায় দুই পরিবারের অভিভাবক স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান বাবু, কয়েকজন ইউপি সদস্য ও এলাকার লোকজন নিয়ে সালিশি বৈঠকে বসে। সালিশি বৈঠকে উভয় পক্ষের সম্মতিতে দশ দিনের মধ্যে বিয়ে করতে বাধ্য থাকিবে মর্মে লিখিত সমাঝোতা হয়।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

ব্রেকিং নিউজঃ