কিশোরীকে আত্মহত্যায় প্ররোচনার দায়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জে তিনজনের কারাদন্ড

চাঁপাইনবাবগঞ্জের সদর উপজেলার গোবরাতলা ইউনিয়নের আমারক গ্রামে শিউলী রানী (১৪) নামে এক কিশোরীকে যৌন হয়রানী করে আত্মহত্যায় প্ররোচনার দায়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে দায়েরকৃত মামলার তিন আসামীকে বিভিন্ন মেয়াদে করাদন্ড দিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার দুপুরে আসামীদের উপস্থিতিতে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনাল-২ এর বিচারক জিয়াউর রহমান মামলার তিন আসামী ওই গ্রামেরই মোঃ হোসেনের ছেলে মোঃ খাইরুল (২৪) কে দশ বছর সশ্রম কারাদন্ড ও দশ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে তিন মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড, মোঃ সাজ্জাদের ছেলে মোঃ ফারুক (২৩) কে পাঁচ বছর সশ্রম করাদন্ড ও পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড, সাইফুদ্দিনের ছেলে মোঃ রনি (২৪) কে পাঁচ বছর সশ্রম করাদন্ড ও পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন।

এজাহার সুত্র ও অতিরিক্ত সরকারী কৌসুলী আঞ্জুমান আরা জানান, ২০১২ইং সালের ৮ ডিসেম্বর দুপুরে জমি থেকে খড় নিয়ে বাড়ী ফিরছিল শিউলী। পথে দন্ডিতরা তাকে নানা ভাবে যৌন হয়রানী করে। শিউলী তাৎক্ষনিক এর প্রতিবাদ করে ও ঘটনাটি বাড়িতে জানায়। এর মধ্যে আসামীরা পালিয়ে যায়। শিউলীর পিতা-মাতা ঘটনাটি গ্রামবাসীকে জানায়। গ্রামবাসী তাদের এ ব্যাপারে মামলা মোকাদ্দমা না করে মীমাংসার জন্য বলে। কিন্তু বিকেলে শিউলী ঘটনার লজ্জায় ও ঘৃনায় কীটনাশক পান করে আত্মহত্যা করে।

Please follow and like us:

Related posts

Leave a Comment