আইএসের ধর্ষণের স্বীকার হয়ে সন্তানের জন্ম দিয়েছিলেন তিনি!

অনলাইন ডেস্ক : জঙ্গি গোষ্ঠি আইএসদের অধীনে রয়েছে বেশ কিছু যৌনদাসী। আইএস জঙ্গিদের মানসিক বিকৃতির শিকার এই সমস্ত মেয়েরা। এমনই এক যৌনদাসী সম্প্রতি আইএসদের ডেরা থেকে মুক্ত হয়ে তার করুণ অভিজ্ঞতার কথা সকলের সঙ্গে ভাগ করে নিল। তার নাম নিহাদ বরাকট শামো আলওয়াসি। কিভাবে দিনের পর নিহাদের উপর শারিরীক এবং মানসিক অত্যাচার চলত সেই সম্পর্কেই বিশদভাবে জানিয়েছে সে৷

নিহাদ জানায়, মাত্র ১৫ বছর বয়সেই তাকে অপহরণ করা হয় তার নিজের বাড়ি থেকে। ইরাকের উত্তর-পশ্চিমে সিনজার এলাকায় নিহাদের বাড়ি। আইএস জঙ্গিরাই তাকে অপহরণ করে তারপর ডেরায় নিয়ে আসে৷ আর তারপরই তার উপর চলে অকথ্য অত্যাচার, ধর্ষণ৷ এমনকি ধর্ষণের ফলে সে একসময় গর্ভবতীও হয়ে পড়ে বলে সে জানায়৷ কিন্তু এহেন মানসিক এবং শারিরীক নির্যাতনের পরও কিন্তু নিহাদ থেমে থাকেনি৷ নতুন উদ্যমে আবার নতুনভাবে বাঁচার স্বপ্ন দেখত সে৷ আর তারই সুযোগ খুঁজতো নিহাদ সবসময়৷ এমন অবস্থাতে আচমকাই তার সামনে একটা সুযোগ এসে যায়৷ আইএস ডেরা থেকে মুক্ত হয়ে অস্ট্রেলিয়াতে যাওয়ার চেষ্টা করে৷ আর এরপরই সে প্রোটেকশন ভিসার জন্য আবেদন করে৷ নিহাদ জানায়, শিক্ষকতা করতে চায় সে৷ আর সেই কারণেই অস্ট্রেলিয়া দেশটিই সবথেকে সঠিক দেশ হিসেবে মনে করে সে৷ তাই সেই দেশে যাওয়ার জন্যই ভিসার আবেদন জানায় সে৷

এই প্রসঙ্গে অস্ট্রলিয়া সরকার জানিয়েছে, সিরিয়া এবং ইরাক যুদ্ধে বিধ্বস্ত ওই দেশের নাগরিকেরা সুরক্ষিত থাকার জন্য অস্ট্রেলিয়াতে যাওয়ার জন্য আবেদন জানায়৷ গত মার্চ মাসে ১২,০০০জনকে প্রোটেকশন ভিসা দেওয়া হয়েছে৷

নিহাদ আরও জানায়, তাদের উপর প্রতিনিয়ত অত্যাচার চলত৷ এমনকি এই ধর্ষণের পর তাদের বাচ্চাকেও তাদের কাছে থেকে কেড়ে নেওয়া হত৷ নিহাদের ক্ষেত্রেও অন্যথা হয়নি৷ ধর্ষণের পর সেও গর্ভবতী হয়ে পরে এবং সে এক পুত্র সন্তানের জন্ম দেয়৷ আর তার ঠিক তিনমাস পরেই নিহাদকে বিয়ে করে আইএস জঙ্গিগোষ্ঠীর একজন জঙ্গির ভাই। আর এভাবেই তার কপাল খুলে যায়। সে ওই ডেরা থেকে মুক্ত হয়ে তার বাড়িতে ফোন করে। এরপর সিওয়াইসিআই নামের একটি সংগঠন তাকে উদ্ধার করে। সূত্র: কলকাতা টুয়েন্টিফোর।

 স্বাধীন বাংলা ডেস্ক

Please follow and like us:

Related posts

Leave a Comment