মেয়ে পূজাকে গভীর আশ্লেষে চুম্বন করেছিলেন বাবা মহেশ ভাট্ট

বিনোদন ডেস্ক : একবার ‘কফি উইথ করণ‘ চ্যাট শোতে করণ জোহর আলিয়া ভাট্টকে প্রশ্ন করেছিলেন উনি নিজের সম্পর্ক সব থেকে অদ্ভুত গুজব কী শুনেছেন? উত্তরে আলিয়া বলেছিলেন‚ উনি নাকি এক জায়গায় পড়েছেন যে উনি হলেন মহেশ ভাট্ট এবং ওঁর সৎ বোন পূজা ভাট্টের মেয়ে। এটাই নাকি ওঁর জীবনের সব থেকে weirdest rumour।

আলিয়ার কথায় ‘ আমি যখন এই খবরটা পড়ি কিছুক্ষণের জন্য আমার মাইন্ড ব্ল্যাঙ্ক হয়ে যায়। কী করে কেউ এমন লিখতে পারে‚ আমি তা আজ অবধি ভাবতে পারি না। আমাকে অনেকবার আমার বাবার দ্বিতীয় বিয়ে নিয়ে প্রশ্ন করা হয়। হ্যাঁ‚ আমার বাবা দ্বিতীয়বার বিয়ে করেছে এবং আমি দ্বিতীয় স্তীর সন্তান। এতে এত আশ্চর্য হওয়ার কী আছে? আমি নাকি পূজা আর মহেশের মেয়ে ! এটা ভীষণ হাস্যকর। যে এটা লিখেছে তার ডাক্তার দেখানো উচিত। আই ফিল সরি ফর হিম। ‘

পূজা হলেন মহেশের প্রথম পক্ষের সন্তান। তার মা লোরেন ব্রাইটের সঙ্গে মহেশের বিয়ে খুব অল্প বয়সে হয়। মহেশের যখন মাত্র ২১ বছর বয়স তখন পূজা জন্মায়। লোরেন নিজের নাম বদলে তা কিরণ ভট্ট করেন। এই দম্পতির আরো এক সন্তান জন্মায়‚ ছেলে রাহুল। পরে কিরণের সঙ্গে সম্পর্ক খারাপ হতে থাকে মহেশের। এই সময় উনি অভিনেত্রী পারভিন ববির প্রেমে পড়েন। পরে তার জীবনে আসেন সোনি রাজদান। তখনো কিন্তু উনি কিরণের সঙ্গে বিবাহিত। উনি হিন্দু থেকে মুসলিম ধর্ম গ্রহণ করেন এবং সোনিকে বিয়ে করেন। সোনির সঙ্গে ওঁর দুই মেয়ে জন্মায় শাহীন এবং আলিয়া।

অবশ্য যে ওই প্রতিবেদনটি লিখেছিলেন যে মহেশ এবং পূজা হলেন আলিয়ার মা-বাবা‚ তাকে খুব একটা দোষ দেওয়া যায় কি? ওপরের ছবিটা দেখে আপনারাই বিচার করুন‚ কোনো বাবা মেয়ে এমনভাবে স্মুচ করতে পারে? একটা ম্যাগাজিনের কভারে এই ছবি বেরোয়। বলাই বাহুল্য এই ছবি দেখে তখন মহেশ আর পূজার সম্পর্ক নিয়ে প্রচুর বিতর্ক তৈরি হয়েছিল।

Please follow and like us:

Related posts

Leave a Comment