আমার বয়স ১৪, আমি বয়ফ্রেন্ডের সঙ্গে শুয়েছি, জ্ঞান দেবেন না, বাঁচান…

নাবালক প্রেমিকের জোরাজুরিতে আচমকা যৌনতার প্রথম পাঠ নিতে হয়েছে। কিন্তু ঘটনার পরে অনুশোচনা ও আতঙ্কে দিশেহারা কিশোরী এক পারিবারিক বন্ধুর পরামর্শ চেয়ে চিঠি লিখল।

কিশোরীর লেখা চিঠির বয়ান এই রকম: ‘ছয় মাস আগে এক বন্ধুর জন্মদিনের পার্টিতে দীপের সঙ্গে আলাপ হয়। আমার চেয়ে ও মাত্র এক বছরের বড়, সবে পনেরোয় পড়েছে। আমরা পরস্পরের বাড়িতে প্রায়ই যাতায়াত করি। গ্রীষ্মের ছুটির এক দুপুরে দীপের সঙ্গে বসে ওদের টিভিতে ‘বজরঙ্গি ভাইজান’ দেখছিলাম। তখন বাড়িতে আর কেউ ছিল না। এক সময় ও আমাকে চুমু খেতে শুরু করে। আবেশে চোখ বুজে ফেলেছিলাম, কিন্তু হঠাত্‍ তাকিয়ে দেখি ও নিজের প্যান্টের জিপার খুলতে শুরু করেছে।

আমি বললাম, ‘কী করছ দীপ?’

দীপ চোখ বড় করে বলল, ‘কেন, যা সব্বাই করে! আমরা এবার সেক্স করব ডার্লিং।’

চমকে উঠে বললাম, ‘না, না! কী বলছ তুমি। আমি এখনও ওসবের জন্য তৈরি নই।’

কিন্তু আমার ঠোঁট চেপে ধরে আবার গভীর চুমু খেতে থাকল দীপ। তার পরপ আমাকে সোফার উপর শুইয়ে দিয়ে নিজের পোশাক খুলে ফেলে নগ্ন হয়ে আমার সামনে এসে দাঁড়াল। ভয়ে, উত্তেজনায় আমার তখন গলা শুকিয়ে গিয়েছে। তবু বাধা দেওয়ার চেষ্টা করলাম। উঠে চলে যেতে চাইলাম। আর তখনই ও সোজাসুজি প্রশ্ন করল, ‘তুমি আমায় ভালোবাসো না?’

এ কথার কোনও উত্তর আমার জানা ছিল না। ওকে যে আমি প্রাণের চেয়েও বেশি ভালোবাসি। ওকে কিছুতেই হারাতে চাই না। মৃদু হেসে আস্তে আস্তে আমাকে বিবস্ত্র করল দীপ। তার পর আমার সারা শরীরে ওর হাত-জিভ-ঠোঁট খেলা করে বেড়াতে লাগল। শিউরে উঠলাম পলকে পলকে। তার পরে জীবনে প্রথম যৌন মিলনের স্বাদ পেলাম।

 

Please follow and like us:

Related posts