চাঁপাইনবাবগঞ্জে গৃহবধূ ধর্ষণ মামলায় দুইজনের যাবজ্জীবন

নিজস্ব প্রতিবেদক: চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার আতাহীর জুগিডাইং গ্রামের আদিবাসী গৃহবধূ সান্তনা হাসদাকে (৩০) নিজ বাড়ি হতে অপহরণ করে পাশের একটি আমবাগানে ধর্ষণের অপরাধে আরিফুল ইসলাম (৩২) ও মো. জিয়ারুল (৩৪) নামে দুই আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড প্রদান করেছেন আদালত।

সেই সাথে তাদের দেড়লক্ষ টাকা করে জরিমানা অনাদায়ে তিন বছর করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করা হয়। জরিমানার টাকা সান্তনা হাসদা প্রাপ্ত হবেন বলেও রায়ে উল্লেখ করেন বিচারক।

রবিবার দুপুরে চাঁপাইনবাবগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ট্রাইবুনাল-২ এর বিচারক মো. জিয়াউর রহমান আসামিদের উপস্থিতিতে এই দণ্ডাদেশ প্রদান করেন। দুই শিশু সন্তানের জননী নির্যাতনের শিকার আদিবাসী গৃহবধূ সান্তনা হাসদা সদর উপজেলার জুগিডাইং গ্রামের বাবলু মুরমুর (৪২) স্ত্রী। সাজাপ্রাপ্ত আরিফুল ইসলাম একই উপজেলার আতাহীর মোড়ের দেলশাদ কটা ও মো. জিয়ারুল আন্ধানিডাঙ্গা গ্রামের মো. মোস্তফা ওরফে কানজেল এর ছেলে।

এজাহার সূত্রে ও মামলায় সরকার পক্ষের কৌসুলী আঞ্জুমান আরা জানান, গত ২৯/১১/১৪ তারিখ রাতে সান্তনা নিজ ঘরে দুই শিশু সন্তান নিয়ে ঘুমিয়ে থাকার সময় অভিযুক্তরা জোর করে ঘরে প্রবেশ করে। তারা জোর করে সান্তনাকে প্রায় ১ কিলোমিটার দূরের একটি আমবাগানে নিয়ে যায়। সেখানে আরিফুল তাকে জোর করে ধর্ষণ করে। জিয়ারুল আরিফুলকে এই কাজে সহায়তা করে। এ ঘটনায় সান্তনা নিজে বাদি হয়ে সদর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ওই দুজনকে আসামি করে মামলা করেন।

গত ২২ মার্চ সদর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) জাহাঙ্গীর আলম আদালতে ওই দুইজনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। স্বাক্ষ্য গ্রহণ ও শুনানী শেষে আদালত রবিবার ওই দুইজনকে দোষী সাব্যস্ত করে এই দণ্ডাদেশ প্রদান করেন। আসামি পক্ষে আইনজীবি ছিলেন গোলাম মোর্শেদ।

Please follow and like us:

Related posts