অর্থমন্ত্রীকে বানানো হয়েছে ‘বলির পাঁঠা’: রিজভী

অলনিউজ ডেস্ক: আবগারি শুল্ক ও ভ্যাট আইন বাস্তবায়ন নিয়ে সংসদে অর্থমন্ত্রী আবদুল মাল আবুল মুহিতের সমালোচনার মধ্যে তাকে ‘বলির পাঁঠা’ বানানো হয়েছে বলে মন্তব্য করে বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, প্রস্তাবিত বাজেট নিয়ে সরকার জনগণের সঙ্গে ‘তামাশা’ করছে।

সংসদের ভেতর ও বাইরে বিভিন্ন মহলের সমালোচনার মধ্যে প্রধানমন্ত্রী ‘ভ্যাট আইন’ বাস্তবায়ন স্থগিতের নির্দেশ দিয়েছেন বলে বিভিন্ন গণমাধ্যমে আসা খবরের পর বৃহস্পতিবার বিকেলে এক সংবাদ সম্মেলনে এ প্রতিক্রিয়া জানান তিনি।

তিনি বলেন, “বিতর্কিত ভ্যাট আইন স্থগিতের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী, অদ্ভূত ব্যাপার, সকল প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে তারপরে সংসদে যায় বাজেট, বাজেটে অর্থবিল একটা আইন, এই বিল যাওয়ার আগে মন্ত্রিপরিষদের অনুমোদন হয়। তাহলে আমাদের প্রশ্ন, এটি ক্যাবিনেট মিটিংয়ে অনুমোদন হলো কীভাবে?

“প্রধানমন্ত্রীর ইমেজ বৃদ্ধির জন্য প্রস্তাবিত বাজেট নিয়ে জনগণের সঙ্গে চলছে তামাশা, চলছে নাটক। সরকার চোরকে বলছে চুরি করতে আর পুলিশকে বলছে ধরো ধরো। প্রধানমন্ত্রীর ভাবমূর্তি রক্ষা করতে গিয়ে অর্থমন্ত্রীকে বেকুব ও রাবিশে পরিণত করা হয়েছে।”

গত ১ জুন বাজেট প্রস্তাবের পর থেকে ভ্যাট এবং ব্যাংক আমানতে আবগারি শুল্ক নিয়ে সংসদে সরকারি ও বিরোধী দলের সমালোচনা সইতে হচ্ছে মুহিতকে। এমনকি মন্ত্রীদের মধ্যে কয়েকজনও সংসদে দাঁড়িয়ে বাজেটের সমালোচনা করেছেন, যদিও তাদের উপস্থিতিতেই মন্ত্রিসভার বৈঠকে পাস হওয়া বাজেট উপস্থাপন করেছেন মুহিত।

‘জনদুর্ভোগের সরকার’

ঈদে ঘরমুখে যাত্রায় মানুষকে দুর্ভোগ মুখে পড়তে হচ্ছে দাবি করে সরকারকে ‘জনদুর্ভোগের সরকার’ বলে আখ্যায়িত করেন বিএনপি নেতা রিজভী।

তিনি বলেন, “এই সরকার হচ্ছে জনদুর্ভোগের সরকার। ঈদে ঘরমুখী মানুষের দুর্ভোগের কোনো সীমা নেই। ঢাকার চারিদিকে সকল মহাসড়কে দীর্ঘ যানজটে যাত্রীদের নাকাল অবস্থা। এর মূল কারণ হলো- রাস্তাঘাট খানাখন্দকে ভরা।

“বৃষ্টির পানিতে খানাখন্দক ভরে এখন খালে পরিণত হয়েছে। মহাসড়কগুলোয় দীর্ঘ যানজটে মানুষের ভোগান্তি চরম বেড়েছে, এটা সরকারের চরম ব্যর্থতার বহিঃপ্রকাশ। মন্ত্রীরা বাগাড়ম্বর কথা বলে যাচ্ছেন, কিন্তু দেশের উন্নয়নের কোনো চিহ্ন নেই।”

গণমাধ্যমের পরিসংখ্যানের বরাত দিয়ে সারা দেশে সড়ক-মহাসড়কের ৭৫ হাজার কিলোমিটারেরই বেহাল দশা দাবি করে রিজভী বলেন, “এগুলো সরকারের দুর্নীতির উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত।”

ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার খোশালপুর গ্রামে বিএসএফের গুলিতে দুই কিশোরকে নিহতের ঘটনায় সরকার ‘নিশ্চুপ’ রয়েছে অভিযোগ করে সমালোচনা করেন রিজভী।

সংবাদ সম্মেলনে দলের ভাইস চেয়ারম্যান এজেডএম জাহিদ হোসেন, যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবীর খোকন, কেন্দ্রীয় নেতা আবদুস সালাম আজাদ, তাইফুল ইসলাম টিপু, মুনির হোসেন, বেলাল আহমেদ উপস্থিত ছিলেন।

Please follow and like us:

Related posts

Leave a Comment