বউকে চুমু খেতে লজ্জা পেয়েছিলেন মেসি

মেসি-রোকুজ্জোর বিয়ের দুই দিন পার হয়ে গেলেও আলোচনায় থেকে গেছে এই রাজকীয় আয়োজন। আরও কিছুদিন হয়তো এ আলোচনা চলবে। বাল্যকালের প্রেমিকাকে বউ সাজিয়ে ঘরে তোলার জন্য আড়াই মিলিয়ন ডলার খরচ করেছেন মেসি। ছিলেন ফুটবল ও শোবিজ জগতের বিখ্যাত সব তারকারা। তবে সবকিছু ছাড়িয়ে আলোচনায় মেসি-রোকুজ্জোর চুম্বনপর্ব।

আর্জেন্টাইন সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবরে জানা গেছে,রোকুজ্জোর প্রিয় গায়ক আবেল পিন্টো। ৩৩ বছর বয়সী এই শিল্পী মেসি-রোকুজ্জোর বিয়েতে গাইতে এসেছিলেন। পিন্টোর কণ্ঠে ‘আই লাভ ইউ উইদাউট বিগিনিং অর এন্ড’ গানটি শেষ হতেই রোকুজ্জোকে ‘লিপ-লক’ করতে এগিয়ে যান মেসি।

লাতিন অঞ্চলের বিয়ের অনুষ্ঠানের অত্যাবশ্যকীয় একটি অংশ হলো বর-কনের চুম্বনপর্ব। বর-কনে দীর্ঘক্ষণ একে অপরকে জড়িয়ে চুমু খান। কিন্তু আর্জেন্টাইন ফুটবল জাদুকর রোকুজ্জোকে চুম্বন করতে গিয়ে কয়েক সেকেন্ডের মধ্যেই মুখ সরিয়ে নেন!

দীর্ঘক্ষণ তো দূরের কথা, মিনিটখানেক সময়ও নাকি রোকুজ্জোর ঠোঁটে ঠোঁট ডোবাননি মেসি! এটা নিয়েই গুঞ্জন সোশ্যাল নেটওয়ার্কে। কেউ লিখেছেন, ‘ফুটবলে মেসির কাছেই কিছুই অসম্ভব নয়। কিন্তু চুম্বনটা কি মেসির কাছে অসম্ভব?’

কেউ আবার টিপ্পনি কেটে বলেছেন, ‘কিসটা কিন্তু মেসি।’ তবে সবচেয়ে গ্রহণযোগ্য তথ্য দিয়েছেন মেসির ঘনিষ্ঠজনেরা। তারা বলেছেন, যে মেসি ফুটবল মাঠে প্রতিপক্ষকে নিয়মিত লজ্জায় ফেলে দেন, সেই মেসিই নাকি ভীষণ লাজুক প্রকৃতির ছেলে! তাই এত এত মানুষের সামনে বউকে চুমু খেতে গিয়ে লজ্জায় পড়ে এমনটা করেছেন ফুটবল জাদুকর!

Please follow and like us:

Related posts