হালাল সেক্সের ওপর বই, পশ্চিমা বিশ্বে হৈ চৈ

বিখ্যাত মার্কিন লেখিকা ব্রোকি ম্যাগনানাতি ‘বেলে ডি জোর’ উপন্যাসটি পড়েছেন নিশ্চয়ই। যেখানে একজন সদ্য বয়ঃপ্রাপ্ত কিশোরীর যৌনজীবন ও নব দম্পতির জীবনে নানা সমস্যার কথা তুলে ধরা হয়েছে। এখানে স্বামীর সঙ্গে সে কীভাবে যৌনমিলন করবে এসব প্রশ্নের উত্তর খুঁজে বেড়ায় উপন্যাসের নায়িকা। এবার সেই প্রশ্নগুলোর উত্তর দিতেই সম্ভবত মার্কিন মুসলিম এক লিখিকা সেক্স ম্যানুয়েল লিখলেন।

গত সপ্তাহে ‘দ্য মুসলিমাহ সেক্স ম্যানুয়েল’ শিরোনামের বইটি লিখেছেন উম্মু লাদাত নামের এক লেখিকা। তিনি বলেছেন, মূলত একজন ভাল স্ত্রী হতে এই বইটি সাহায্য করবে। এখানে শুধু বিয়ের পর মুসলিম নারী-পুরুষের যৌনজীবনের যে বৈধতা রয়েছে তাই তুলে ধরা হয়েছে।

ইতিমধ্যেই বইটি ব্যাপকভাবে জনপ্রিয়তা পেয়েছে পশ্চিমা বিশ্বে। বিশেষ করে নারীবাদীদের সমালোচনার খোরাক হয়েছে বলে মনে করছেন কেউ কেউ। রোববার (১৬ জুলাই) ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য অবজারভারকে দেয়া এক সাক্ষাতকারে উম্মু বলেন, ‘আমি বইটিতে স্বামীর সঙ্গে যৌনমিলনে উৎসাহিত করেছি। বইটি পড়ে দক্ষতার সাথে যৌনমিলন করতে পারবে।’

‘ইসলামের দৃষ্টিতে বিয়ের মধ্য দিয়েই কোনো পুরুষের সঙ্গে নারীর যৌনমিলন ঘটতে পরে; এটা শুধু সন্তান জন্ম দেয়ার জন্যই নয়। একজন স্ত্রীর অধিকার আছে যে নিরাপদভাবে স্বামী তার সঙ্গে সহবাস করবে।’

উম্মু লাদাত তার বইটিতে স্বামীর সঙ্গে কোন কোন উপায়ে যৌনমিলন করতে পরবে। ইসলামী আইনে জায়েজ কি না সেটা তুলে ধরেছেন। সেখানে- ডগি স্টাইল, সামনে-পেছনের ব্যবহার, ওরাল সেক্স থেকে শুরু করে বর্তমান সময়ে যে সব উপায়ে সেক্স করা হয় সবকিছু নিয়েই আলোচনা করেছেন।

বইটি প্রকাশের পর থেকে তিনি ইতিমধ্যে ডজন ডজন ই-মেইল পেয়েছেন। যেখানে স্বামীর সঙ্গে মিলনের সময় কী কী করা দরকার তার পরামর্শ চাওয়া হয়েছে। সূত্র: ডেইলি মেইল ও অ্যাবাউট ইসলাম।

Please follow and like us:

Related posts