প্রেসিডেন্ট কন্যার বুকের দুধ খাওয়ানোর ছবি নিয়ে বিতর্ক

সোশাল মিডিয়াতে কিরগিজস্তানের প্রেসিডেন্টের কনিষ্ঠ কন্যার পোস্ট করা একটি ছবি আলোড়ন ফেলে দিয়েছে। ছবিটিতে দেখা যাচ্ছে, আলিয়া শাগিয়েভা শুধু অন্তর্বাস পরিহিত অবস্থায় তার শিশু সন্তানকে স্তন্য পান করাচ্ছেন।

আলিয়া শাগিয়েভা এই ছবিটি সোশাল মিডিয়াতে পোস্ট করেছিলেন গত এপ্রিল মাসে। তার ক্যাপশন হিসেবে তিনি লিখেছিলেন, আমার সন্তানকে যখন ও যেখানে খাওয়ানো দরকার, আমি তাকে সেখানে ও তখনই খাওয়াবো।

ছবিটি পোস্ট করার সাথে সাথেই প্রেসিডেন্ট কন্যা ও ছবিটির সমালোচনা শুরু হয়। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠে অনৈতিক আচরণের। এই অভিযোগ ও সমালোচনার মধ্যেই তিনি ছবিটি সরিয়ে নেন।

পরে বিবিসিকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে আলিয়া শাগিয়েভা বলেন, তার দেশের সংস্কৃতিতে নারীকে যৌনতা হিসেবেই দেখা হয় বলে ছবিটি নিয়ে এরকম বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে। আমাকে যে শরীর দেয়া হয়েছে সেটি অশ্লীল নয়। এর অনেক কাজ রয়েছে। আমার শিশুর শারীরিক চাহিদা মেটাতে এর ভূমিকা রয়েছে। এখানে শুধু যৌনতার কিছু নেই।

শুধু যে সোশাল মিডিয়াতেই তিনি সমালোচনার শিকার হয়েছেন তা নয়, তার পিতামাতাও এই ছবি পোস্ট করার ঘটনাটি মেনে নিতে পারেন নি।

কিরগিজ প্রেসিডেন্ট আলমাজবেক আতামবায়েফ এবং তার স্ত্রী রাইসাও ছবিটির পোস্ট করা নিয়ে খুশি নন। তারা আসলেই ছবিটি পছন্দ করেন নি। এবং এটা বোধগম্য কারণ তরুণ প্রজন্ম তাদের পিতামাতার চাইতে কম রক্ষণশীল।

শাগিয়েভা সোশাল মিডিয়াতে খুবই সক্রিয়। নিজের শিল্পকর্মও তিনি সেখানে পোস্ট করেন। পোস্ট করেন নিজের হাতে আঁকা নিজের, তার স্বামীর এবং সন্তানের প্রতিকৃতি বা পোট্রেট।

তিনি বলেন, আমি যখন আমার শিশুকে স্তন্যপান করাই তখন মনে হয় যে আমি তাকে সেরা জিনিসটাই দিচ্ছি, যেটা আমার পক্ষে দেওয়া সম্ভব। লোকজন যা বলাবলি করে তারচেয়েও আমার শিশুর যত্ন নেওয়া এবং তার চাহিদা মেটানোই আমার কাছে অনেক গুরুত্বপূর্ণ। সূত্র: বিবিসি।

Please follow and like us:

Related posts

Leave a Comment