বঙ্গমাতা ফজিলাতুননেসা মুজিবের জন্মবার্ষিকী আজ

আজ মঙ্গলবার (৮ আগস্ট) জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সহধর্মিনী, বাঙালির সব লড়াই-সংগ্রাম-আন্দোলনে নেপথ্যের প্রেরণাদাত্রী বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুননেসা মুজিবের ৮৭তম জন্মবার্ষিকী। শুধু বাঙালি জাতির পিতাই নন, বঙ্গবন্ধুর বিশ্ববরেণ্য রাষ্ট্রনায়কে পরিণত হওয়ার পেছনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা ছিল এই মহীয়সী নারীর।

বাঙালি জাতির মুক্তি সনদ ছয় দফা ঘোষণার পর বঙ্গবন্ধু যখন বারবার পাকিস্তানি শাসকদের হাতে বন্দি হতেন, তখন দলের সর্বস্তরের নেতাকর্মী ফজিলাতুননেসা মুজিবের কাছে ছুটে আসত। তিনি তাদের শেখ মুজিবুর রহমানের বিভিন্ন দিকনির্দেশনা পৌঁছে দিতেন এবং লড়াই-সংগ্রাম চালিয়ে যাওয়ার জন্য প্রেরণা জোগাতেন। বিশেষ করে আগরতলা যড়যন্ত্র মামলায় যখন বঙ্গবন্ধুর প্যারোলে মুক্তি নিয়ে কিছু কুচক্রী স্বাধীনতা সংগ্রামকে বিপন্ন করার ষড়যন্ত্রে মেতে উঠেছিল, তখন বেগম মুজিবের শক্ত অবস্থান বাংলার মুক্তিসংগ্রামকে ত্বরান্বিত করেছিল, যা বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের ইতিহাসে স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে।

এই মহীয়সী নারী ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে সপরিবারে খুনিচক্রের বুলেটের আঘাতে নির্মমভাবে শহীদ হন। বঙ্গমাতার ৮৭তম জন্মবার্ষিকীটি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন করবে। এ উপলক্ষে আজ সকাল সাড়ে ৮টায় রাজধানীর বনানী কবরস্থানে শ্রদ্ধার্ঘ্য অর্পণ, কোরআনখানি, মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে। দলের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের যথাযোগ্য মর্যাদায় দিনটি পালন করার জন্য বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, সহযোগী ও ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনের নেতাকর্মী, সমর্থক, শুভানুধ্যায়ীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

Please follow and like us:

Related posts