জঙ্গী মাহফুজের অনুসারী ছিল অপারেশন ঈগল হান্টে নিহত আবু

নিজস্ব প্রতিবেদক: চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জের জঙ্গি বিরোধী অপারেশন ‘ঈগল হান্টে’ নিহত আবুল কালাম ওরফে আবু হলি আর্টিজান মামলার অন্যতম পরিকল্পনাকারী সোহেল মাহরুজের অনুসারী ছিল বলে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে উল্লেখ করেন সোহেল মাহফুজ।
তিন দিনের রিমান্ড শেষে শনিবার দুপুরে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের আদালতের বিচারক শহিদুল ইসলামের কাছে তিনি জবানবন্দীতে এ কথা বলেন।
মামলার তদন্ত কর্মকর্তা শিবগঞ্জ থানার ওসি হাবিবুল ইসলাম হাবিব জানান সোহেল মাহফুজের দেয়া জবান বন্দীর উধৃতি দিয়ে জানান,শিবগঞ্জ উপজেলার শিবনগরে অপারেশন ‘ঈগল হান্টে’ নিহতরা সবাই জঙ্গি নেতা সোহেল মাহফুজের অনুসারী ছিল। তারা সোহেল মাহফুজের দেয়া নির্দেশ বাস্তবায়ন করতো।
এছাড়া আবুসহ নিহত অন্য তিনজনও নিয়মিত বৈঠকে মিলিত হয়ে সদস্য সংগ্রহসহ বিভিন্ন রকমের পরিকল্পনা করতো।
জবানবন্দী গ্রহনের পরে বিচারক তাকে কারাগাওে পাঠানোর নির্দেশ দেন।গত ৭ জুলাই রাতে শিবগঞ্জ উপজেলার পুষ্কনি এলাকার একটি আম বাগান থেকে সোহেল মাহফুজ তার আরো তিন সহযোগিসহ গ্রেফতার হন। কাউন্টার টেররিজম ইউনিট ও স্থানীয় পুলিশ যৌথ অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করে।
প্রসঙ্গত, গত ২৬ থেকে ২৮ এপ্রিল শিবগঞ্জ উপজেলার শিবনগর গ্রামের একটি বাড়িতে পরিচালিত হয় অপারেশর ঈগলহান্ট। ওই অভিযানে জঙ্গি আবুসহ চারজন নিহত হন। জীবিত উদ্ধার হয় আবুর স্ত্রী সুমাইয়া ও শিশু সন্তান। ওই ঘটনায় পুলিশের দায়ের করা মামলার আসামী সোহেল মাহফুজ।
এর আগে বৃহস্পতিবার হলি আর্টিজান মামলার অন্যতম পরিকল্পনাকারী সোহেল মাহফুজকে চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে জঙ্গি বিরোধী অভিযান ‘ঈগল হান্ট’ মামলায় তিনদিনের রিমান্ডে নিয়ে জিঞ্জাসাবাদ করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা।
সংবাদটি শেয়ার করুন

Related posts

Leave a Reply