বন্যায় খাদ্য ঘাটতি মোকাবিলায় প্রস্তুত সরকার: প্রধানমন্ত্রী

ঘনঘন বন্যার কবলে পড়লেও এ বছর ঘাটতি মোকাবিলা করতে পর্যাপ্ত খাদ্য মজুদ করা হচ্ছে বলে আবারও নিশ্চিত করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

রোববার সকালে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত জাতীয় পুষ্টি পরিষদের প্রথম সভায় একথা বলেন তিনি। শুধু নীতিমালায় আটকে না থেকে ‘পুষ্টি সম্পর্কে’ জনসচেতনতা তৈরির ওপর গুরুত্বারোপ করেন শেখ হাসিনা।

১৯৭৫ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কর্তৃক জাতীয় পুষ্টি পরিষদ গঠন করা হয়। এরপর অবৈধভাবে ক্ষমতায় আসা আর কোনো সরকার এই পরিষদের কার্যক্রম পরিচালনা করেনি।

১৯৯৭ সালে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে পুষ্টি পরিষদের কার্যক্রম শুরু করলেও নানা বাস্তবতায় তা আর সফল হয়নি বলে সভায় উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত পুষ্টি পরিষদের সভায় শেখ হাসিনা বলেন- খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জনের পর, এবার সরকারের টার্গেট সবার জন্য সুষম পুষ্টি নিশ্চিত করা। সভায় সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ও ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা অংশ নেন।

এ সময় তিনি বলেন, ‘আমাদের সব সময় হিসেব রাখতে হয়। বাংলাদেশে প্রাকৃতিক দুর্যোগ যে কোনো সময় দেখা দিতে পারে। যেমন এবারের আগাম বন্যায় অনেক ফসর নষ্ট হয়েছে।’

প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, ‘এ বছর ধারণা করা যাচ্ছে আবারো বন্যা আসতে পারে। আর এর জন্য খাদ্য সমস্যা দেখা দিতে পারে। জনগণ যাতে খাদ্য সমস্যায় না পড়ে তারজন্য খাদ্য ক্রয় করে হলেও মজুদের ব্যবস্থা আমরা নিচ্ছি।’

Please follow and like us:

Related posts

Leave a Comment