রাস্তা থেকে উঠিয়ে নিয়ে গণধর্ষণ

0

অসুস্থ মাকে হাসপাতালে দেখে বাড়ি ফেরার পথে গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন ১৯ বছরের এক তরুণী। রাস্তা থেকে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে পরিত্যক্ত এক ভিটায় তার ওপর পাশবিক নির্যাতন চালায় পাঁচ যু্বক। আজ ভোরে ঘটনাটি ঘটেছে পটুয়াখালীর বাউফলে। এ ঘটনায় তরুণী বাদী হয়ে আজ শনিবার দুপুরে পাঁচজনের বিরুদ্ধে বাউফল থানায় মামলা দায়ের করেন। বাউফল থানার ওসি আযম খান ফারুকী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। ধর্ষণে জড়িত থাকার অভিযোগে কবির হোসেন (২৮) নামের এক ব্যক্তিকে স্থানীয়রা আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজে চিকিৎসাধীন মা’কে দেখতে গিয়েছিলেন ওই তরুণী। ঈদের দিন ভোরে হাসপাতাল থেকে গ্রামের বাড়ির পথে রওনা দেন তিনি। ভাড়ায় চালিত মোটরসাইকেলে করে যাওয়ার পথে পাঁচ যুবক সাইকেলটির গতি রোধ করে। তারা তরুণীর মুখ চেপে ধরে উঠিয়ে নিয়ে যায় আধা কিলোমিটার দূরের এক পরিত্যক্ত ভিটায়। সেখানে তাকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। তরুণীর চিৎকারে স্থানীয় কয়েকজন যুবক এগিয়ে গেলে ধর্ষকরা পালানোর চেষ্টা করে। স্থানীয়রা কবিরকে আটক করে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে কবির দাবি করেছে যে সে ধর্ষণের সঙ্গে জড়িত নয়। তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী ঘটনার সঙ্গে জড়িত চার সন্দেহভাজন হলো- জাফর গাজী (৩০), মিজান সরদার (২৪), সিদ্দিক (৩০) ও মঞ্জু (২৮)। এরা প্রত্যেকেই ভাড়ায় চালিত মোটরসাইকেলের চালক বলে জানায় কবির।
বাউফল থানার ওসি আযম খান জানান, ওই তরুণী বাদী হয়ে পাচঁজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। একজনকে আমরা গ্রেপ্তার করতে পেরেছি। বাকিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে। ধর্ষণের শিকার তরুণীকে মেডিকেল পরীক্ষার জন্য পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজে পাঠানো হয়েছে বলেও জানান তিনি।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

ব্রেকিং নিউজঃ