বিবিসি বাংলার প্রতিবেদন……….রোহিঙ্গা ইস্যুতে ভারত কেন মিয়ানমারের পাশে?

রোহিঙ্গা ইস্যুতে ভারতের মিয়ানমারের পাশে থাকা যতটানা অর্থনৈতিক তাঁর থেকেও বেশি রাজনৈতিক কারণ। ভারতের মূল উদ্দেশ্য মিয়ানমারে চীনের প্রভাব বলয়ে ফাটল ধরানো। রোহিঙ্গা সঙ্কট নিয়ে চীনের মৌনতার সুযোগ কাজে লাগাতে চাইছে বিজেপি সরকার। এমন তথ্যই উঠে এসেছে বিবিসি বাংলার প্রতিবেদনে। ’

এদিকে সম্প্রতি ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়, ‘সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধে ভারত সবসময় মিয়ানমারের পাশে থাকবে।’ এমন বক্তব্য কেই নতুন মাত্রা দিয়েছে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আজকের (৫ সেপ্টেম্বর) মিয়ানমার সফর।

ভারত যে সম্প্রতি বিশেষ অভিযানের জন্য মিয়ানমারের সেনাবাহিনীকে প্রশিক্ষণ দেওয়ার কথা বলেছেন, সেটাকেও দেখা হচ্ছে রোহিঙ্গা বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে মিয়ানমারের সেনা অভিযানের প্রতি দিল্লির সমর্থন হিসাবে।

উল্লেখ, জাতিসংঘের প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয়, সম্প্রতি ৪০০ জন ও ২০১৬ সালের অক্টোবর থেকে দেশটির উত্তর-পূর্ব রাখাইন রাজ্যে বসবাসরত মুসলিম রোহিঙ্গা সম্প্রদায়ের ওপর সহিংসতা চালাচ্ছে দেশটির সেনাবাহিনী। জাতিগতভাবে নির্মূল করতে রোহিঙ্গা সম্প্রদায়ের গ্রামে আগুন দিয়ে বসতবাড়ি পুড়িয়ে দেওয়াসহ গণহত্যা ও গণধর্ষণ চালান সেনাবাহিনীর সদস্যরা। এর আগে ২০১২ সালের জুনেও রাখাইন রাজ্য সাম্প্রদায়িক দাঙ্গায় আক্রান্ত হয়েছিল। তখন প্রায় ২০০ রোহিঙ্গা নিহত হন। ওই সময় দাঙ্গার কবলে পড়ে প্রায় এক লাখ ৪০ হাজার মানুষ বাস্তুচ্যুত হয়েছিল।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Related posts

Leave a Reply