স্বপ্নের নায়ক একজনই, তিনি সালমান শাহ : মাহি

বাংলা চলচ্চিত্রের এক উজ্জ্বল নক্ষত্র। যিনি তার স্টাইল আর অভিনয় দিয়ে মুগ্ধ করেছিলেন লাখো দর্শকদের। বলছি বাংলা ছবির অমর নায়ক সালমান শাহ’র কথা। মৃত্যুর ২১ বছর পরও কমেনি তার জনপ্রিয়তা। দর্শদের মনে আজো বেঁচে আছেন স্বপ্নের নায়ক হয়ে।

শুধু সাধারণ দর্শকই নন; বিভিন্ন প্রজন্মের তারকাদের কাছেও সালমান শাহ প্রিয় নাম। তেমনি অমর এই নায়কের ২১তম মৃত্যুবার্ষিকীতে এই প্রজন্মের জনপ্রিয় নায়িকা মাহিয়া মাহি সালমান শাহকে নিয়ে জানালেন তার ভালোবাসার কথা।

মাহি বলেন, ‘শুধু পোশাকে, স্টাইলেই নয়, চলাফেরা, মুখের ভঙ্গি সবকিছুতেই আমি সালমান শাহর ভক্ত। একটা প্রশ্ন আসতে পারে, একজন অভিনয়শিল্পীর কয়টি ছবি দেখলে দর্শক তার ভক্ত হবেন? অনেকে হয়তো বলেন, বেশ কিছু ছবি। তবে আমি মনে করি, একটা ছবিই একজন শিল্পীকে অন্যসব শিল্পী থেকে আলাদা করতে যথেষ্ট। সালমান তেমনই একজন নায়ক ছিলেন। তার প্রতিটি অভিনয়ই ছিল অসাধারণ।’

এই নায়িকা আরও বলেন, ‘কেয়ামত থেকে কেয়ামত’ ছবির প্রথম দৃশ্যই বলে দেয়, নায়ক হিসেবে সালমান শাহ কতো পারফেক্ট। এরপর অন্তরে অন্তরে, এই ঘর এই সংসার, সুজন সখী, বুকের ভিতর আগুন, স্বপ্নের পৃথিবী, আশা ভালোবাসা, তোমাকে চাই, আনন্দ অশ্রু, সত্যের মৃত্যু নেই’সহ প্রায় সবগুলো ছবিতেই দক্ষ অভিনয়শিল্পীর প্রমাণ দিয়েছেন সালমান শাহ। সত্যি বলতে, আমার সিনেমা দেখার শুরুর সময়টাতে বাংলা ছবি দেখতাম টিভিতে। তখন সিনেমা ভালো লাগত শুধু সালমান শাহর জন্য।

সালমানের একটি নাটকের কথা আজও মনে পড়ে। সেটি হলো ‘নয়ন’। নাটকে তিনি হাতের পাঁচ আঙুলে খুব সূক্ষ্মভাবে ছুরি চালিয়েছেন। ছুরি চালানোর সে কৌশলটা আজও আমার কাছে আশ্চর্য মনে হয়।’

সালমানে মুগ্ধ মাহি বলেন, ‘মাত্র চার বছর অভিনয় ক্যারিয়ারে প্রায় ২৬টির মতো ছবিতে অভিনয় করেন এ শিল্পী। তার অভিনীত প্রতিটি চলচ্চিত্রই ছিল দর্শকমহলে হিট। এ কারণেই বাংলাদেশের মানুষ তাকে আজও শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করেন। বাংলা চলচ্চিত্রে সালমানের মতো নায়ক কখনও আসবেন কি-না আমার সন্দেহ আছে। সালমানের অভিনয়গুণে আমি তার ভক্ত হয়েছি আজ থেকে অনেক বছর আগে। এখন পর্যন্ত আমি এ নায়কের ভক্ত।

আমি এখনও তার অভিনীত পুরনো চলচ্চিত্রগুলো দেখি। যত দেখি, ততই ভালো লাগে। আমি মনে করি আমাদের স্বপ্নের নায়ক একজনই, তিনি সালমান শাহ।’

সূত্র: জাগোনিউজ২৪.কম

Please follow and like us:

Related posts

Leave a Comment