প্রস্তুত ছিল না বাংলাদেশ

৩ উইকেটে ৪৯৬ রান নিয়ে চা-বিরতিতে যাওয়া দক্ষিণ আফ্রিকাকে তৃতীয় সেশনে কিভাবে থামানো যায় সেটাই ভাবছিল বাংলাদেশ।  এরই মধ্যে খবর আসে ইনিংস ঘোষণা করেছেন ফাফ দু প্লেসি।  তার ওই সিদ্ধান্তে অপ্রস্তুত হয়ে পড়ে মুশফিকুর রহিমের দল।

মাত্রই চোট থেকে সেরে উঠা তামিম ইকবাল ছোটখাটো সমস্যার জন্য দ্বিতীয় সেশনে মাঠ ছাড়েন।  চিকিৎসা নিতে চা-বিরতির আগে ৪৯ মিনিট ছিলেন মাঠের বাইরে।  দু প্লেসি আচমকা ইনিংস ঘোষণা করায় ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মতো ইনিংস উদ্বোধন করতে পারেননি তিনি।

হঠাৎ করেই নতুন ওপেনার খুঁজতে হয় বাংলাদেশকে।  তামিমের জায়গায় ইমরুল কায়েসের সঙ্গে ইনিংস উদ্বোধন করেন লিটন দাস।  যার সঙ্গী ছিল ১৪৬ ওভার কিপিং করার ক্লান্তি।  দ্বিতীয় দিনের খেলা শেষে দলের প্রতিনিধি হয়ে আসা তাসকিন আহমেদ জানান, বাংলাদেশের সবাই যে কোনো জায়গায় খেলতে সব সময় প্রস্তুত।

“তামিম ভাইয়ের একটু সমস্যা হচ্ছিল।  হঠাৎ করে ওরা ইনিংস ঘোষণা করাতে দুর্ভাগ্যজনকভাবে উনি ইনিংস উদ্বোধন করতে পারেননি।  আমি মনে করি না, তামিম ভাইয়ের ওপর কোনো প্রভাব পড়বে বা দলের ওপর কোনো প্রভাব পড়বে।  বাকিরা সবাই আছে, ওরা যে কোনো জায়গায় খেলতে প্রস্তুত। ”

দ্বিতীয় সেশনে আঁটসাঁট বোলিং করা বাংলাদেশ তৃতীয় সেশনের পরিকল্পনা সাজাচ্ছিল।  এমন সময় খবর আসে, চা-বিরতি শেষে ব্যাটিংয়ে নামতে হবে।

“ওরা তো হঠাৎ করে ইনিংস ঘোষণা করেছে।  এটা নিয়ে আমাদের কোনো পরিকল্পনা ছিল না।  আমরা তৈরি ছিলাম না।  এখন সব ঠিকই আছে।  এত ফিল্ডিং করার পর যে কারোর ছোটখাটো সমস্যা হতেই পারে। ”

Related posts

Leave a Comment