শেখ হাসিনাকে হত্যাচেষ্টা মামলার রায় আজ

২৮ বছর আগে শেখ হাসিনার বাসায় হামলা করে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছিল। এই অভিযোগে ফ্রিডম পার্টির নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে দায়ের করা দুটি মামলার রায় হবে আজ রোববার। ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর আবদুল্লাহ আবু এ তথ্য জানিয়েছেন। তিনি জানান, সকালে নাজিমউদ্দিন রোডের বিশেষ এজলাসে হত্যাচেষ্টা মামলার রায় দেবেন বিচারক। আর বিকালে জনসন রোডে মহানগর দায়রা জজ আদালত ভবনের দ্বিতীয় তলার এজলাস থেকে দেয়া হবে বিস্ফোরক মামলার রায়। ১৬ই অক্টোবর চাঞ্চল্যকর এ মামলার রাষ্ট্র ও আসামি পক্ষের যুক্তিতর্ক শেষ হয়।

ওই দিন ঢাকার চতুর্থ অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ মো. জাহিদুল কবির রায়ের জন্য ২৯শে অক্টোবর দিন ধার্য্য করেন। মামলার আসামিরা হচ্ছে, গোলাম সারোয়ার ওরফে মামুন, জজ মিয়া, ফ্রিডম সোহেল, সৈয়দ নাজমুল মাকসুদ মুরাদ, গাজী ইমাম হোসেন, খন্দকার আমিরুল ইসলাম কাজল, মিজানুর রহমান, হোমায়েন কবির, মো. শাজাহান বালু, আবদুর রশীদ, জাফর আহম্মদ ও এইচ কবির। মামলা সূত্রে জানা গেছে, ১৯৮৯ সালের ১০ই আগস্ট মধ্যরাতে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর ধানমন্ডির ৩২ নম্বরের বাড়িতে গুলি ও বোমা নিক্ষেপ করা হয়।

শেখ হাসিনা তখন বাড়িতেই ছিলেন। ফ্রিডম পার্টির সদস্য কাজল ও কবিরের নেতৃত্বে ১০-১২ জনের একটি দল অতর্কিত এই গুলিবর্ষণ ও বোমা হামলা করে। হামলাকারীরা ‘কর্নেল ফারুক-রশিদ জিন্দাবাদ’ বলে স্লোগান দিতে দিতে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় পুলিশ কনস্টেবল জহিরুল ইসলাম বাদী হয়ে একটি মামলা করেন। ১৯৯৭ সালের ২০শে ফেব্রুয়ারি তদন্ত শেষ করে হত্যাচেষ্টা ও বিস্ফোরক আইনে দুটি অভিযোগপত্র দাখিল করে পুলিশ। আসামি করা হয় ১২ জনকে। ২০০৯ সালের ৫ জুলাই আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে বিচার শুরু হয়।


Please follow and like us:

Related posts

Leave a Comment