রাজশাহীতে চা বিক্রেতা কে ইয়াবা দিয়ে চালান দিলো রাজপাড়া থানা পুলিশ!

এসএম বিশাল : রাজশাহী মহানগরীতে একজন চা বিক্রেতাকে ১৫ পিস ইয়াবা দিয়ে চালান দিয়েছে রাজপাড়া থানা পুলিশ বলে অভিযোগ উঠেছে অত্র এলাকায়। গত রবিবার কাশিয়াডাংগা বায়লার সেনপুকুর এলাকায়, রাত্রি সাড়ে ৮ টার সময় এই ঘটনাটি ঘটে। জানা যায় বায়লা সেনপুকুর এলাকায় মোড়ের উপর দির্ঘ ২০ বছর থেকে চায়ের ব্যবসা করে আসছেন আলামিন(২৬) নামের একটি ছেলে। আলামিন বায়লার সেনপুকুর এলাকার দিনমজুর রিক্সা চালক মান্নানের ছেলে। গত রবিবার ২৯অক্টোবর প্রতিদিনের মতো চা তৈরি করে কাস্টমারদের নিজ হাতে পরিবেশন করছেন।রাত্রি ৮ টা থেকে ৮ টা ত্রিশ মিনিটের সময় বিদ্যুৎ চলে যায়, এমন সময় আলামিনের দোকানের পার্সে,দারিয়ে থাকা পাতলা করে কালো রঙের একটি ছেলে, সেই ছেলেটি আলামিনের দোকানে পলিথিনে মুড়ানো অবস্তায় ইয়াবিটি ফেলে দেয়, তার কিছুক্ষণ পর কাশিয়াডাংগা পুলিশ ফাঁড়ির এ এস আই জাহিদ সহ সংগীও ফোর্স নিয়ে হাজির হয়।এবং আলামিন কে তার দোকানে ফেলেরাখা ইয়াবা সহ আটক করে নিয়ে যায়। ঘটনা স্থল থেকে একাধিক সুত্রে জানা যায় আলামিন দির্ঘ ২০ বছর থেকে চা সিগারেটের ব্যবসা করে আসছেন। কিন্তু কোনদিন দেখা যায়নি বা শুনাও যায়নি যে আলামিন ইয়াবার ব্যবসা করে! অতি দরিদ্র পরিবারের ছেলে আলামিন।তার একমাত্র উপার্জন এই চায়ের দোকান।এই দোকান থেকে চলতো তাদের সংসার।আলামিনের একটি পাচ বছরের সন্তান আছে। কোনদিকে প্রভাবিত করবে এই বাচ্চার ভবিষ্যৎ?এই বয়সে তার বাবা বিনা দোষে মাদক মামলায় আজ জেল হাজতে! প্রতক্ষ্যদর্শি ওষুধ ব্যবসায়ী সুমন আলী তিনি বলেন, আমার চোখের সামনে অন্যায় ভাবে একটি ছেলেকে, কে বা কাহারা ষড়যন্ত্র করে ফেলে রাখা ইয়াবা সহ তাকে ধরে নিয়েগেছে পুলিশ।আমরা অনেক অনুরোধ করার পরও তাকে ছারেনি। আমি ছোট থেকে তাকে চিনি এবং আমার সামনেই তার চায়ের দোকান। মাদকের ব্যবসা যদি করতই, তাহলে সে পালানোর সুযোগ পাওয়া সর্তেও পালাইনি।তা না করে শক্ত কন্ঠে বলে উঠলো আমাকে কেউ ফাঁসানোর চেস্টা করছে।আমি সাধারণ একজন খেটে খাওয়া দিন মজুর মানুষ। এখন কি হবে আমার এবং আমার পরিবারের?এই বিষয়ে প্রতক্ষ্যদর্শি জুয়েল রানা তিনি বলেন ষড়যন্ত্রকারীরা পুলিশের যোগসাজশে নাটকীয় কায়দায় একজন দিন মজুর রিক্সাচালকের ছেলে আলামিন কে, এমন একটি ঘটনায় নিয়েগেছে যা বাস্তবতার সাথে কোনপ্রকার মিল নেই।সে একজন ভালো ছেলে।মানবতা আজ কোথায় গিয়ে দারিয়েছে?এই ঘটনার বিষয়ে এ এস আই জাহিদ তিনি বলেন আমি দির্ঘ ৫ বছর থেকে আর এম পিতে কর্মরত আছি আমার চাকুরীর ক্যারিয়ারে এমন কোন অভিযোগ নেই। কাউকে মিথ্যা মামলার অভিযোগে বা চক্রান্ত করে আটক করা। এই বিষয়ে রাজপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হাফিজুর রহমান তিনি বলেন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আলামিন কে ইয়াবা সহ গ্রেফতার করা হয়েছে। গতকাল মাদক মামলা দিয়ে কোট হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।


Please follow and like us:

Related posts

Leave a Comment