আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে ছাত্রদলের হামলা-ভাঙচুর

বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলায় জেএসসি পরীক্ষা চলাকালীন এক কলেজ ছাত্রলীগ কর্মীকে মারধরের প্রতিবাদ করায় আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে হামলা ও ভাঙচুর চালিয়েছে ছাত্রদল নেতাকর্মীরা। দফায় দফায় ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া ও হামলায় ছাত্রলীগ নেতাসহ কমপক্ষে ১২ জন আহত হয়েছেন। বুধবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় ছাত্রলীগ কর্মী আসাদুজ্জান নূর, রফিক পাইক, রাজু সরদার, নাফিজ পাইক, নাঈম পাইক, আবু বকর ও ছাত্রদল কর্মী শাকিল গ্রুপের শাকিল, অহিদুল, টিপু ও রাব্বী আহত হন। আহত রফিক পাইককে হাসপাতালে ও অন্যান্য আহতদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

আহত ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, জেএসসি পরীক্ষা চলাকালীন কোদালধোয়া গ্রামের কলেজ ছাত্রলীগ কর্মীকে মারধর করে নগড়বাড়ি গ্রামের কলেজ ছাত্রদল কর্মী শাকিল খান ও তার সহযোগীরা। ছাত্রলীগ নেতারা তাৎক্ষণিক বিষয়টি মীমাংসা করে দিলেও একপর্যায়ে ছাত্রদল কর্মী নগড়বাড়ি গ্রামের শাকিল খানের নেতৃত্বে রাব্বি, টিপু, অহিদুল, ইউসুফসহ ২৫/৩০ জনের দল লাঠিসোটা নিয়ে হামলা চালায়।

এ সময় উভয় পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটে। পরে শাকিল ও তার সহযোগীরা উপজেলা সদরের আওয়ামী লীগ দলীয় কার্যালয়ে হামলা-ভাঙচুর চালায়। হামলাকারীরা দলীয় কার্যালয়ের আসবাবপত্র রাস্তায় ফেলে দিয়ে ব্যাপক ভাঙচুর করে। এতে উভয় পক্ষের ১২ জন আহত হয়।

হামলা থামাতে গিয়ে উপজেলা ছাত্রলীগ সাবেক সভাপতি কামরুজ্জামান সেরনিয়াবাত আজাদ, ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক জাকির পাইক লাঞ্ছিত হন। নেতাকর্মীদের ওপর হামলার ঘটনায় উপজেলা ও কলেজ ছাত্রলীগের উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভা হয়েছে।

আগৈলঝাড়া থানা পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত) আবদুর রহমান জানান, দুপুরে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুইপক্ষের মধ্যে হাতাহাতি হয়। পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানান তিনি।

Please follow and like us:

Related posts

Leave a Comment