ক্লিনিক্যাল ল্যাবরেটরি পরীক্ষায় “কোয়ালিটি কন্ট্রোল” করা হয় কি?

0

ফিচার ডেস্কঃ ল্যাবরেটরি প্রফেশনালদের মাঝে সচারচর উচ্চারিত শব্দগুলোর একটি হলো কোয়ালিটি কন্ট্রোল (QC) বা মান নিয়ন্ত্রণ, যা বর্তমানে বিভিন্ন হাসপাতাল কোন ধরনের মান নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা ছাড়াই, “সব ধরনের পরীক্ষায় কোয়ালিটি কন্ট্রোল করা হয়” লিখে বিপণন ও প্রচারনা চালাচ্ছে তাই স্বভাবতই মনে প্রশ্ন জাগে কোয়ালিটি কন্ট্রোল কি? নাকি ঠকিয়ে বেশী টাকা আদায়ের নতুন কৌশল?

কোয়ালিটি কন্ট্রোল কি?

একটি পরীক্ষাগারের ফলাফলের মান উন্নত করার জন্য একটি বিশ্লেষণাত্মক পরিকল্পনা, যা রোগীকে রিপোর্ট প্রদানের পূর্বেই এর মাধ্যমে যথাক্রমে প্রথমতঃ যন্ত্রপাতির ত্রুটি, দিত্বীয়তঃ কেমিকেলের ত্রুটি, তৃত্বীয়তঃ ল্যাবরেটরি প্রফেশনালদের দক্ষতার ত্রুটি, এই তিন ধরনের ত্রুটি সনাক্তকরণ, হ্রাস ও সংশোধন করা যায়।

কোয়ালিটি কন্ট্রোল দুই প্রকারঃ-

♦ ১. বহিরস্থঃ (রুমের পরিছন্নতা, তাপমাত্রা, কর্মীদের জন্য নির্ধারিত পোষাক ও সাধারনের সংরক্ষিত প্রবেশাধিকার দ্বারা নিয়ন্ত্রণযোগ্য) যা সকল ডায়াগনষ্টিক সেন্টারই করে থাকে।

♦ ২. অভ্যান্তরিনঃ নরমাল ও প্যাথলজিক নামে যথাক্রমে দুই ধরনের (ক্ষেত্র বিশেষে নরমাল, হাই, লো এই তিন ধরনের) QC সিরা ব্যবহার করতে হয় যা লিকুইড (তরল-সরাসরি ব্যবহাযোগ্য ও অত্যান্ত ব্যয়বহুল) ও লাইফোলাইজড (শুস্ক-পানির সাথে মিশিয়ে ব্যবহারয়োগ্য ও কম ব্যবহুল) দুরকমই হতে তবে স্থানান্তর জনিত ত্রুটি (pipetting error) কমানোর জন্য লিকুইড ব্যবহারই শ্রেয়। QC সিরার সাথে মান চার্ট দেয়া থাকে ও উপরোক্ত যে কোন সিরাকে নমূনা হিসেবে পরীক্ষা করা হয় এবং প্রাপ্ত ফলাফলকে QC সিরার সাথে প্রাপ্ত মান চার্টের সাথে তুলনা করা হয়। লেভে-জেনিংস চার্টে কোয়ালিটি কন্ট্রোল ডেটা দৃশ্যমান করে, মান নিয়ন্ত্রণের তথ্য ব্যাখ্যা করতে গ্রাফিকাল এবং পরিসংখ্যান উভয় পদ্ধতি ব্যবহৃত হয়। গ্রাফের X-অক্ষ বরাবর বিশ্লেষণের তারিখ এবং Y-অক্ষ বরাবর একাধারে BLANK, STANDARD, QC, SAMPLE এর গড় মান এবং বিচ্যুতি সীমা চিহ্নিত করা হয়। অঙ্কিত পয়েন্টের প্যাটার্ন পর্যবেক্ষন করে ত্রুটি সনাক্তকরন, হ্রাস ও সংশোধন করা যায়।

কোয়ালিটি কন্ট্রোল করা হয় কি না?

রিফাজ আহমেদ, বৈঙ্গানিক কর্মকর্তা, বিসিএসআইআর, তার মতানুসারে শুধুমাত্র রাজধানীর বড়মাপের বিখ্যাত ডায়াগনষ্টিক ল্যাবগুলোতে নিয়মিত QC করা হয় এছাড়া বিভাগীয় শহরের যেসব ল্যাবে ফুল অটোমেটেড এ্যানালিটিক্যাল ইকুইপমেন্ট আছে তারাও মেশিন প্রস্তুতকারক কর্তৃক বাধ্যবাধকতা থাকার কারনে অগত্যা বাধ্য হয়ে QC করে থাকে তবে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে ব্যাতিক্রম ছাড়া সাধারনত কোন ডায়াগনষ্টিক ল্যাবে QC করা হয় না তবে কেমিক্যাল মেট্রোলজি তথা রাসায়নিক পরিমাপ বিজ্ঞান সংক্রান্ত রেফারেন্স ইনস্টিটিউট “ডেজিগনেটেড রেফারেন্স ইনস্টিটিউট ফর কেমিক্যাল মেজারমেন্টস্ (ডিআরআইসিএম)”-এর মৌলিক অবকাঠামো তৈরী করা হয়েছে শীঘ্রই এব্যাপারে সবাইকে বাধ্য

কোয়ালিটি কন্ট্রোল করা হয় না কেন?

♦ ১. হাসপাতাল গুলোর মালিকদের অঙ্গতা, তাছাড়া কোয়ালিটি কন্ট্রোল ব্যায়বহুল তাই খরচ কমিয়ে বেশী আয়ের মানসিকতা তছাড়া ল্যাবের রিপোর্টের মান-উন্নয়নে সদিচ্ছার অভাব।

♦ ২. ল্যাব টেকনোনোলজী বিষয়ে পাঠদানকারী প্রতিষ্ঠানে এমন বিষয়ে দক্ষ শিক্ষকের অভাব হেতু অযোগ্য ল্যাব প্রফেশনালের ছড়াছড়ি।

♦ ৩. যেসব ডাক্তার টেষ্ট এ্যাডভাইস করেন তাদের উন্নসিকতা ও কমিশন খাওয়ার প্রবনতা থাকায় এটা প্রতিষ্ঠান মালিকের বিষয় বলে এড়িয়ে যাওয়া।

আশাকরি আপনার সচেতনতা সকলের জন্য সঠিক ডায়াগনসিস রিপোর্ট নিশ্চিত করবে।

লেখক পরিচিতিঃ-

মোঃ জাহিদুল ইসলাম (জাহিদ) তিনি ঢাকা ইউনিভার্সিটি ডিন মেডিসিন ফ্যাকাল্টির ২০০৪-০৫ শেষনের মেধা তালিকায় ১ম স্থান অর্জন সহ এ্যাফিলিয়েটেড আইএমটি থেকে ২০০৯ সালে ল্যাবরেটরি মেডিসিনে গ্রাজুয়েশন ও ২০১৫ সালে প্রাইমএশিয়া ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ থেকে মাইক্রোবায়োলজী তে পোষ্ট গ্রাজুয়েশন সম্পন্ন করেন এবং CMUD থেকে ডিপ্লোমা ইন মেডিকেল আলট্রাসাউন্ড সম্পন্ন করেন। বর্তমানে মাস্টার্স অব পাবলিক হেলথ বিষয়ে রাজশাহী ইউনিভার্সিটিতে অধ্যায়নরত আছেন।

তথ্যসূত্রঃ-

♦ 1. Grant, E.L. and R.S. Leavenworth (1988). “Statistical Quality Control”, Sixth Edition, McGraw-Hill Book Company.

♦ 2. Westgard, J.O., P.L. Barry (1986). “Cost-Effective Quality Control: Managing the Quality and Productivity of Analytical Processes”AACC Press.



 

 

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

ব্রেকিং নিউজঃ