অপশক্তির পৃষ্ঠপোষকতা বন্ধ করুন, ফখরুলকে কাদের

0

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, মির্জা ফখরুল সাহেব, অপশক্তির পৃষ্ঠপোষকতা বন্ধ করুন। অপশক্তিকে মদদদান অব্যাহত রাখলে আগামী নির্বাচনে জনগণ ব্যালটে সমুচিত জবাব দেবে।

আজ রোববার দক্ষিণ সিটি করপোরেশন ভবনে ৭ মার্চের জনসভা উপলক্ষে সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলরদের নিয়ে একটি প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত হয়। ওবায়দুল কাদের প্রস্তুতি সভার প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ মন্তব্য করেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, অধ্যাপক জাফর ইকবালের ওপর হামলাকারী কারা, তাদের স্বরূপ উন্মোচিত হয়ে গেছে। এরা সাম্প্রদায়িক অপশক্তির ‘কিলিং গ্রুপের’ সদস্য। এটি একটি টার্গেট অ্যাটাক এবং এই অপশক্তিকে পৃষ্ঠপোষকতা করে বিএনপি নামক একটি দল। তিনি বলেন, ‘সেই দলের (বিএনপি) মহাসচিব বলেন আমরা আড়াল করছি। কী আড়াল করা হয়েছে? সঙ্গে সঙ্গে অ্যাটাকার গ্রেপ্তার হয়েছে। সঙ্গে সঙ্গে চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী স্বয়ং তদারকি করছেন।’

গণমাধ্যমের একটি অংশ প্রকাশ্যেই এক দলের পক্ষে নেমেছে 
ওবায়দুল কাদের তাঁর বক্তব্যের বেশির ভাগ সময় নাম উল্লেখ না করে গণমাধ্যমের, বিশেষ করে সংবাদপত্রের সমালোচনা করেন। তিনি বলেন, উদ্দেশ্যমূলকভাবে প্রধানমন্ত্রীকে কিছু কিছু গণমাধ্যম কাভারেজ দিচ্ছে না। দেশের গণমাধ্যমের একটি অংশ প্রকাশ্যেই সরকারকে প্রতিপক্ষ করে একটি দলের পক্ষ হয়ে আদাজল খেয়ে নেমেছে। অধিকাংশ গণমাধ্যম বলছে খুলনার জনসভা সব রেকর্ড ভেঙে ফেলেছে। বরিশালের জনসভা স্মরণাতীত বড় সমাবেশ। সিলেটের জনসভা সমসাময়িক সময়ে নেই। কিন্তু কেউ কেউ সত্যকে বিকৃত করে। মনে হয়, দিতে হয় সে জন্য কোনো রকমে সাদামাটা একটি প্রতিবেদন দিয়েছে। বিশাল জনসভাকে বিশাল বলতে তাদের লজ্জা হয়।

সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘তারা কারা আমরা জানি, আমি সংবাদপত্রের সঙ্গে বসেছি। তথ্যমন্ত্রী আমাকে আমন্ত্রণ করেছিলেন। সেখানে আমি বলেছি, আমাদের যেটা প্রাপ্য সেটা দেবেন। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী, সরকারপ্রধানকে বারবার বঞ্চিত করা হচ্ছে। বারবার তাঁর সঙ্গে যে আচরণটা করা হচ্ছে, এটাকে বস্তুনিষ্ঠ আচরণ বলে না। আমি সব মিডিয়াকে বলছি না। কিছু কিছু মিডিয়া—আপনারাও জানেন এরা কারা।’

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘আমি আবারও বলছি, আমরা মিডিয়ার সঙ্গে যুদ্ধ, লড়াই, ঝগড়া করতে চাই না। গঠনমূলক সমালোচনা আমরা সমর্থন করি। প্রধানমন্ত্রীর প্রাপ্য কাভারেজ দিচ্ছেন না। তারপরও কিন্তু কারও ওপর আমরা হস্তক্ষেপ করিনি।’

সংবাদপত্র নিয়ে ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, একটি দলের পক্ষে যারা আদাজল খেয়ে নেমেছে, তারা বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতার নামে সত্যকে বিকৃত করে। এটার নাম সাংবাদিকতা নয়।

৭ মার্চ দোকানপাট, অফিস বন্ধ না করার নির্দেশনাও দেন কাদের।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মুহিবুল হাসান চৌধুরী, মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ প্রমুখ।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

ব্রেকিং নিউজঃ