আজ শাকিব-অপুর চূড়ান্ত বিচ্ছেদ

0
শাকিব খান ও অপু বিশ্বাস। পর্দার এই হিরো-হিরোইন ক্যারিয়ার জীবনে শতভাগ সফল। কিন্তু ক্যারিয়ারে সফল হলেও ব্যাক্তিগত জীবনে অর্থাৎ সংসার জীবনে তারা অনেকটাই ব্যর্থ। পর্দার রোমান্টিকতা ছাপিয়ে যে ভালোবাসার বন্ধন দুজন রচনা করেছিলেন তার যবনিকাপাত ঘটতে যাচ্ছে আজ ১২ মার্চ। চূড়ান্ত বিচ্ছেদ ঘটতে যাচ্ছে এদিন।
সোমবার ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনে (ডিএনসিসি) শাকিব-অপুর তৃতীয় ও শেষ শুনানি হবে। এর আগের প্রথম শুনানিতে অপু আসলেও আসেননি শাকিব। যেহেতু শাকিব দ্বিতীয় শুনানিতে আসবেন না তাই ওইদিন অপু বিশ্বাসও আসেননি। কারণ সমঝোতার কোনো সুযোগ নেই দেখে অপু বিচ্ছেদ মেনে নেন।

শাকিব-অপুর চূড়ান্ত বিচ্ছেদ আজ

উল্লেখ্য, গত বছরের ২২ নভেম্বর অপুকে বিবাহ বিচ্ছেদের চিঠি পাঠান শাকিব। গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়, তিন মাস পর কার্যকর হবে বিবাহ বিচ্ছেদ। সেই হিসাবে ২২ ফেব্রুয়ারি শাকিবের বিবাহ বিচ্ছেদের চিঠি পাঠানোর তিন মাস পূর্ণ হয়। তবে ওই সময় শাকিব-অপুর বিবাহ বিচ্ছেদ কার্যকর হয়নি বলে জানান ঢাকা সিটি করপোরেশনের (অঞ্চল-৩) প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হেমায়েত হোসেন।
ওই প্রসঙ্গে হেমায়েত হোসেন বলেন, শাকিব খান যেদিন স্বাক্ষর করেছিলেন, সেদিন থেকে তিন মাস পর কার্যকর হবে ব্যাপারটা এমন নয়। আমরা সিটি করপোরেশন তাদের তিন মাসে তিনবার ডাকব, সেই তৃতীয়বার বিষয়টির ফয়সালা হবে।
তিনি আরও বলেন, আগামী ১২ মার্চ তৃতীয় ও শেষবারের জন্য তাদের আবারও ডাকা হয়েছে। এদিন যদি তারা না উপস্থিত হন, তাহলে বিবাহ বিচ্ছেদ কার্যকর হয়ে যাবে।
উল্লেখ্য, ২০০৮ সালের ১৮ এপ্রিল শাকিব খান ও অপু বিশ্বাসের বিয়ে হয়। বিয়ের ব্যাপারটি কঠোর গোপনীয়তার মধ্যে রেখে তাঁরা দুজন সমানতালে সিনেমার শুটিং অব্যাহত রাখেন। এ বছর ১০ এপ্রিল বিকেলে একটি টেলিভিশন চ্যানেলে ছয় মাস বয়সের ছেলে আব্রামকে সঙ্গে নিয়ে উপস্থিত হন অপু। সেদিন অপু বলেন, ‘আমি শাকিবের স্ত্রী, আমাদের ছেলে আছে।’
আট বছর আগের সে বিয়ের খবর জনসমক্ষে আসার পর দুজনের সম্পর্কের টানাপোড়েন তৈরি হয়। পরিস্থিতি এমন অবস্থায় পৌঁছায় যে শাকিব খান ও অপু বিশ্বাস নিজেদের মধ্যে মুখ দেখাদেখি বন্ধ করে দেন। শুধু ছেলে আব্রামের কারণে মাঝেমধ্যে দেখা হলেও কথা হয়নি দুজনের।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

ব্রেকিং নিউজঃ