শেষ হচ্ছে অপুর সংসার, শাকিবের ইচ্ছেপূরণ

0
বিভিন্ন গণমাধ্যমে (২২ ফেব্রুয়ারি) বৃহস্পতিবার লিখা হয়েছিল বাংলা চলচ্চিত্রের আলোচিত জুটি শাকিব-অপু’র সংসার অধ্যায়ের অবসান ঘটছে। তারকা এই দম্পতি দু’জনের আর এর মধ্যে সমঝোতা হয়নি। তাই আইন অনুযায়ী (২২ ফেব্রুয়ারি) বৃহস্পতিবার ঢালিউডের আলোচিত জুটি শাকিব-অপুর বিবাহ বিচ্ছেদ কার্যকর হচ্ছে বলেও লিখেছিলেন অনেকেই।  কিন্তু আইন অনুযায়ী সেদিন কার্যকর হয়নি তাদের বিচ্ছেদ। আজ তা কার্যকর হচ্ছে। এতে করে দীর্ঘ ১০ বছরের বিবাহিত জীবনের সমাপ্তি টানবেন এই তারকা জুটি।
তারকা জুটি শাকিব খান ও অপু বিশ্বাস বিয়ে করেন ২০০৮ সালে। তবে দু’জনের বিয়ে ও সন্তানের খবরটি প্রকাশ্যে আসে গেল বছরের শুরুতে।  বছরটা শেষও হয়েছে বিচ্ছেদের খবর দিয়েই।
শাকিব খান তাঁর স্ত্রী অপু বিশ্বাসের সঙ্গে সংসার টিকিয়ে রাখতে চান না, এমন ইঙ্গিত আগেই দিয়েছিলেন।  এমনকি শাকিবের অনেক ঘনিষ্ট সূত্র বলেছিল অপুর সাথে সংসার করবার আর কোন ইচ্ছে নেই শাকিব খানের।  পাশাপাশি অপু বিশ্বাসও ডিভোর্স মেনে নিয়েছেন বলে সম্প্রতি গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন। তিনি এখন নিজের মত করে নতুন জীবনের পরিকল্পনা করবেন বলে জানান।
শাকিব খান গত বছরের ২২ নভেম্বর বিবাহবিচ্ছেদের কাগজে স্বাক্ষর করেন।  সেই হিসেবে পারিবারিক আইন অধ্যাদেশ, ১৯৬১ অনুযায়ী- ‘নোটিশপ্রাপ্তির ৩০ দিনের ভিতর চেয়ারম্যান পক্ষদ্বয়ের মধ্যে পুনর্মিলন স্থাপনের উদ্দেশ্যে একটি সালিশি কাউন্সিল গঠন করিবেন এবং এই কাউন্সিল পুনর্মিলন ঘটাইবার জন্য সমস্ত প্রকার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করিবেন।’
এ আইনের আলোকেই শাকিব ও অপুর বিবাহ বিচ্ছদের বিষয়টি আজ সম্পন্ন হবে বলে পূর্বপশ্চিম বিডি নিউজকে জানিয়েছেন ঢাকা সিটি করপোরেশনের (অঞ্চল-৩) প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হেমায়েত হোসেন।  তিনি বলেন, আমরা এখন কাগজ কোথাও পাঠাবো না। আমাদের দেয়া সময়সীমার মধ্যে উভয় পক্ষ আসেনি। তাদের মধ্যে সালিস মিমাংসা করা সম্ভব হলো না। আমাদের বিধিবদ্ধ সময়সীমা শেষ। বলতে পারেন মামলা নিষ্পত্তি হয়ে গেছে’।
তিনি আরো বলেন, ‘আমরা এ কাগজ ও সকল নথিপত্র আমাদের কাছে রাখব, আমাদের কোথাও আর কাগজ বা অনুলিপি পাঠাতে হবে না।  যদি পরবর্তীতে কোন সময়ে বিয়ে করেন তাহলে বিয়ে করতে আমাদের থেকে বিচ্ছেদের এই সার্টিফাইড কপি লাগবে। বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই এই কপি অনেকেই নিয়ে যায় মূলত ঝামেলা এড়ানোর জন্য। ডিভোর্স হয়ে গেছে বুঝানোর জন্য’।
উল্লেখ্য, অন্যদিকে এ বিষয়ে পূর্বপশ্চিম বিডি নিউজের পক্ষ থেকে অপু বিশ্বাসের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি এ বিষয় নিয়ে কোন কথা বলতে রাজি হননি। পাশাপাশি শাকিব খানের এক ঘনিষ্টজনকে এ বিষয়ে ফোন করা হলে তিনি তাঁর ব্যাবহৃত ফোনটি রিসিভ করেননি।  তাহলে বিষয়টি এখন স্পষ্ট, শেষ হচ্ছে অপু’র সংসার পূরণ হচ্ছে শাকিবের ইচ্ছে।
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

ব্রেকিং নিউজঃ