প্রধানমন্ত্রীর সভায় বিপুল জনসমাগমের টার্গেট


Add
Add

পটিয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সোমবার (১৯ মার্চ) সভায় বিপুল জনসমাগমের প্রস্তুতি নিচ্ছে আওয়ামী লীগ। তিন থেকে পাঁচ লাখ লোকের সমাবেশ করার টার্গেট নিয়ে এগোচ্ছেন দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতারা। জেলা থেকে ওয়ার্ড পর্যন্ত বিভিন্ন পর্যায়ে এ নিয়ে চলছে নিয়মিত বৈঠক। 

জনসভা সফল করতে প্রয়োজনীয় দিকনির্দেশনা দিচ্ছেন কেন্দ্রীয় ও জেলা নেতারা। ব্যাপক প্রচারণার লক্ষ্যে রোববার (১৮ মার্চ) শুরু হয়েছে ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ে মাইকিং।

আওয়ামী লীগের দায়িত্বশীল নেতারা বলছেন, প্রধানমন্ত্রীর এই জনসভা আগামী জাতীয় নির্বাচনে দক্ষিণ চট্টগ্রামে যাতে ইতিবাচক ফল বয়ে আনে সে লক্ষ্যেই আমরা প্রস্তুতি নিচ্ছি। জনসভা থেকে বেশ কিছু প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন তিনি। একই সঙ্গে বিভিন্ন প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তরও স্থাপন করবেন।

দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে পটিয়া আদর্শ হাই স্কুল মাঠে সোমবার এ জনসভা হবে। চট্টগ্রাম মহানগরী বাদ দিয়ে দক্ষিণ জেলায় জনসভার স্থান নির্ধারণের কারণে এটি সফল করার জন্য সর্বোচ্চ শক্তি নিয়ে মাঠে নেমেছেন স্থানীয় নেতারা। এ ছাড়া মহানগর ও উত্তর জেলার পক্ষ থেকেও সহযোগিতা দেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছে দায়িত্বশীল একাধিক সূত্র। 

জাতীয় নির্বাচন সামনে রেখে প্রধানমন্ত্রীর এই জনসভাকে বিশেষ গুরুত্বের সঙ্গে দেখছে নেতাকর্মীরা। দক্ষিণ চট্টগ্রামকে জেলা ঘোষণার দাবি রয়েছে দীর্ঘদিন ধরে। এ নিয়ে জনসভায় প্রধানমন্ত্রী ইতিবাচক কোনো ঘোষণা দেবেন বলে মনে করছেন অনেকে। পুনরায় সরকারে এলে দক্ষিণ চট্টগ্রামের জন্য কী করবেন সে বিষয়েও বক্তব্যে বিশেষ প্রতিশ্রুতি থাকবে বলে মনে করছেন নেতারা। একাধিক কেন্দ্রীয় নেতা ইতোমধ্যে চট্টগ্রাম সফর করে গেছেন। স্থানীয় কোন্দল, জনসভার উপস্থিতি, এলাকাবাসীর দাবিদাওয়া, নির্বাচনে দলের মনোনয়নপ্রার্থী কারা- এসব বিষয়ে খোঁজখবর নিয়ে গেছেন। 

জনসভা সফল করতে চট্টগ্রাম মহানগর, উত্তর ও দক্ষিণ জেলার উদ্যোগে মুসলিম হলে যৌথ বর্ধিত সভা করা হয়েছে। পাশাপাশি তিন সাংগঠনিক জেলাতেও হয়েছে সভা। জনসভায় চট্টগ্রাম মহানগর ও জেলাসহ তিন পার্বত্য জেলা ও কক্সবাজার থেকেও উল্লেখযোগ্য সংখ্যক কর্মী-সমর্থক উপস্থিত হবে বলে মনে করছেন নেতারা।

প্রধানমন্ত্রীর পটিয়ার জনসভাকে চট্টগ্রামের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় জনসভায় পরিণত করার প্রত্যয় ব্যক্ত করে দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোসলেম উদ্দিন আহমেদ বলেন, এই জনসভাকে আমরা জনসমুদ্রে পরিণত করতে চাই। জনসভায় তিন থেকে পাঁচ লাখ লোকের সমাবেশ ঘটানোর পরিকল্পনা রয়েছে আমাদের। যদিও জনসভাস্থলে এত লোকের ধারণক্ষমতা নেই। তাই মাঠের আশপাশের সড়কগুলোতে মাইক লাগানো হবে।

Add
ক্রাইম নিউজ ২৪ এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।
ব্রেকিং নিউজঃ
ব্রেকিং নিউজঃ