মধ্যম আয়ের যোগ্যতা অর্জন: ধূমপানে এগিয়ে বাংলাদেশি শিশুরা


Add
Add

লাদেশে ১০ থেকে ১৪ বছর বয়সী এক লাখ ৭২ হাজার শিশু এবং প্রায় ২.৫ কোটি প্রাপ্তবয়স্ক মানুষ নিয়মিত সিগারেট বা তামাক সেবন করেন বলে জানিয়েছে টোব্যাকো অ্যাটলাস রিপোর্ট।

প্রতি বছর বাংলাদেশে এক লাখ ৬১ হাজার দুইশো মানুষ তামাক সেবনের কারনে মারা যায় বলে উল্লেখ করা হয় আমেরিকান ক্যান্সার সোসাইটি ও যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক ভাইটাল স্ট্র্যাটেজিসের সাম্প্রতিক এই প্রতিবেদনে।

আগামী বছরগুলোতে বাংলাদেশে তামাক সেবনের কারনে মৃত্যুর সংখ্যা আরও বাড়বে বলে প্রতিবেদনে আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয় বাংলাদেশে ১৫ বছরের বেশি বয়সী ছেলে বা পুরুষদের মধ্যে ৩৯.৮% প্রতিদিন ধূমপান করে, যা হিউম্যান ডেভেলপমেন্ট ইনডেক্স (এইচডিআই) বা মধ্যম আয়ের যেকোনো দেশের মধ্যে সবচেয়ে বেশি। ১৫ বছরের কম বয়সী শিশুদের ১.৮৬% প্রতিদিন ধূমপান করে। এই শতকরা হারও মধ্যম আয়ের দেশগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি।

রিপোর্টে আরও বলা হয়, বাংলাদেশের ১৫ বছরের বেশি বয়সী নারীদের ০.৭% ধূমপান করেন। বাংলাদেশে প্রতিদিন ধূমপান করেন এমন মহিলাদের সংখ্যা নয় লাখ ৭৯ হাজার পাঁচশো। এখানে ১৫ বছরের কম বয়সী প্রায় ১৬ হাজার মেয়ে নিয়মিত ধূমপান করে বলেও উল্লেখ করা হয় রিপোর্টে।

গ্লোবাল অ্যাটলাস রিপোর্টে বলা হয় মধ্যম আয়ের দেশগুলোর মধ্যে ধূমপান বা তামাক সেবনের কারনে মৃত্যুর হার বাংলাদেশে সবচেয়ে বেশি।

বাংলাদেশে ২৫.৫৪% পুরুষদের মৃত্যুর জন্য ধূমপান বা তামাক সেবন দায়ী। অন্যদিকে এখানে ৯.৬৮% ক্ষেত্রে নারীদের মৃত্যু হয় ধূমপান বা তামাক সেবনের কারনে।

ধূমপান ছাড়াও বিভিন্নভাবে তামাক সেবনের হার মধ্যম আয়ের দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশেই সবচেয়ে বেশি।

তামাক সেবনের কারনে বাংলাদেশের অর্থনীতির ১৫,৮৫৭ কোটি টাকা ক্ষতি হয়। ধূমপান ও তামাক সেবনের কারনে চিকিৎসা সম্পর্কিত ব্যয় ও উপাদন ক্ষমতা কমে যাওয়ার কারনে এই আর্থিক ক্ষতির জন্য দায়ী।

রিপোর্টে বলা হয় বিশ্বের সর্ববৃহৎ ছয়টি সিগারেট কোম্পানির লাভের পরিমাণ ২০১৬ সালে ছিল ৩৪৬ বিলিয়ন ডলার, যা বাংলাদেশের মোট জাতীয় আয়ের চেয়ে ৪৮% বেশি। এই তামাক শিল্প এতই শক্তিশালী যে তারা বিভিন্ন রাষ্ট্রের বিধি নিষেধ উপেক্ষা করে কার্যক্রম চালিয়ে যেতে পারে বলে মন্তব্য করা হয় রিপোর্টে। সূত্র: পরিবর্তন

Add
ক্রাইম নিউজ ২৪ এ প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।
ব্রেকিং নিউজঃ
ব্রেকিং নিউজঃ