বিবাহিতা নায়িকাদেরও দাম আছে, প্রমাণ করবেন রানি

0

জন্মদিনে সোজা জানিয়ে দিলেন, চল্লিশের কোঠায় পা দিয়েছেন। নায়িকারা নাকি বয়স লুকায়! এসবের কখনো ধার ধরেনি এ নায়িকা। গ্ল্যামার কুইন থাকা অবস্থায় ব্লাকের মতো ছবিতে অভিনয় করেছেন। এই জন্মদিনে দিলেন নতুন বার্তা।

চল্লিশ বছরের এই অভিনেত্রী ইন্ডাস্ট্রিতে কাটিয়ে ফেলেছেন প্রায় ২২টা বছর। দুই দশক মানে বদল কম নয়। তার দু’টো দিক। একদিকে যেমন ইন্ডাস্ট্রি বদলে যায়, সিনেমার বিষয়ে, আঙ্গিকে, ধরনে বদল আসে। তেমনি বদলে যায় নায়ক-নায়িকার মুখ। জনপ্রিয়তার লেখচিত্রে স্টারদের স্থানাঙ্কগুলো অদলবদল হয়ে যায়। অন্যদিকে তেমনই নায়ক বা নায়িকার ব্যক্তিগত জীবনেও অনেক পরিবর্তন। রানির কথাই ধরা যাক। ২২ বছর আগে তিনি ছিলেন তরুণী। যাঁর দু’চোখে স্বপ্ন, ইন্ডাস্ট্রিতে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করার। আত্মবিশ্বাস আর অ্যাম্বিশন খেলে যাচ্ছে পাশাপাশি। ২২ বছর পরে তিনি বুঝেছেন, হ্যাঁ, অভিনেত্রী হওযার জন্যই তিনি জন্মেছেন। তবে একজন অভিনেত্রীর জীবন সহজ নয়। বহু সামাজিক বাধা তাদের পেরুতে হয়।

যেমন, অভিনেত্রীদের ক্যারিয়ার সংক্ষিপ্ত। নায়িকা বিবাহিত হলে তো আর কথাই নেই। বিয়ে মানে কফিনের শেষ পেরেক। বক্স অফিসে তাঁদের আর দাম থাকে না। এছাড়া পুরুষদের তুলনায় নায়িকাদের লড়াইও অনেক বেশি। প্রতি পদক্ষেপে নিজেদের প্রমাণ করতে হয়। সন্তান বিয়ের মতো সামাজিক দায়বদ্ধতা পেরিয়ে ক্যারিয়ার নিয়ে আর ভাবার সময় থাকে না। তাঁদের লুক থেকে নাচ, পোশাক থেকে আচরণ সবকিছুই প্রতি মুহূর্তে বিচারের কাঠগড়ায় তোলা হয়। আর সে সব পেরিয়ে পেরিয়েই একজন অভিনেত্রীকে এগোতে হয়।

রানি জানান, শুধু তিনি একা নন, তাঁর সমসাময়িক সব নায়িকাকেই এই পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে হয়েছে এবং হচ্ছে। আর চল্লিশে পা দিয়ে সেই স্টিরিওটাইপ তথা সামাজিক ‘হিচকি’ গুলোকেই সারিয়ে তোলার ডাক দিয়েছেন তিনি। ব্যক্তিগতভাবে তিনি নিজে বিবাহিত ও এক কন্যার জননী। তা সত্ত্বেও ফিরেছেন সিনেমায়। তাঁর কামব্যাক ছবি ‘হিচকি’ মুক্তির অপেক্ষায়। এই সময়ে দাঁড়িয়ে রানির বার্তা, লিঙ্গ বৈষম্যের এই ‘হিচকি’ ভাঙতেই তিনি অভিনয় ছাড়ছেন না। বরং নিজের ক্যারিয়ারের এ নতুন যাত্রাকে আরও অর্থবহ করে তুলতে চাচ্ছেন।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

ব্রেকিং নিউজঃ