বৈশাখে নাড়ির টান

0

একদিন পরই পহেলা বৈশাখ। টানা দুই দিন ছুটি। এ সুযোগে গ্রামমুখী হয়েছেন নগরবাসী। এ জন্য বৃহস্পতিবার থেকেই রাজধানীর রেল ও বাস স্টেশনগুলোতে ছিল প্রচুর ভিড়।

জানা গেছে, শুক্র ও শনিবার সরকারি ছুটি হওয়ায় অনেকেই গ্রামে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। বিশেষ করে বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মীরা। বর্ষবরণের আনন্দ পরিবার-পরিজনের সঙ্গে ভাগাভাগি করতে নাড়ির টানে বাড়ি ছুটেছে মানুষ।

সরেজমিনে দেখা যায়, শহরে একঘেয়েমি জীবন ছেড়ে নববর্ষকে বরণ করতে গ্রামের বাড়িতে যেতে উদগ্রীব নগরবাসী। এ জন্য বৃহস্পতিবার দুপুরের পর থেকে বাস টার্মিনালগুলো লোকে লোকারণ্য হয়ে উঠে। রাজধানীর গাবতলী বাস টার্মিনালে যাত্রীদের ভিড় চোখে পড়ার মত। প্রায় প্রতিটা কাউন্টারের সামনেই দেখা গেছে যাত্রীদের দীর্ঘ লাইন। তবে বৈশাখ উপলক্ষে যারা আগেই বাসের টিকিট কেটে রেখেছেন তাদের এ লাইনে অংশ নিতে হয়নি।

কথা হয় রংপুর যাওয়ার উদ্দেশ্যে কাউন্টারে আসা আরিফুর রহমানের সঙ্গে। তিনি বলেন, বেসরকারি ব্যাংকে চাকরি করি। নববর্ষ উপলক্ষে একদিন ও সাপ্তাহিক দুই দিনের ছুটি পেয়েছি। ভাবলাম মা-বাবার সঙ্গে বর্ষবরণ উদযাপন করি।

একই অবস্থা রাজধানীর মহাখালী বাস টার্মিনালে। দেখা যায়, লম্বা লাইন ময়মনসিংহের এনা বাস কাউন্টারে।

লাইনে থাকা সোহান বলেন, অফিস থেকে বাড়তি একদিন ছুটি নিলাম। তাই আজ রাতেই বাড়ি পৌঁছতে চাই। একদিন বেশি ছুটি নিয়ে একটু আগেই রওনা দিলাম, যেন কোনো ঝামেলা ছাড়া বাড়িতে যেতে পারি।

এনা বাস কাউন্টারের টিকিট মাস্টার তৌহিদুল ইসলাম বলেন, সকাল থেকেই অনেক যাত্রী আসা শুরু করে। তবে সন্ধ্যার পরে শুরু হয় যাত্রীদের মূল চাপ। কারণ আজ সরকারি চাকরিজীবীসহ অন্যান্যরা অফিস শেষ করে বিকেল থেকেই গন্তব্য পানে রওনা দেন।জাগোনিউজ২৪.কম

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

ব্রেকিং নিউজঃ