একবছরে নিহত ১২০ সাংবাদিক

0

বিশ্ব মুক্ত গণমাধ্যম দিবস উপলক্ষ্যে ওয়ার্ল্ড প্রেস ইনস্টিটিউটের (আইপিআই) একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। সেখানে ২০১৭ সালের মে থেকে চলতি বছরের এপ্রিল পর্যন্ত বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে দায়িত্ব পালনকালে ১২০ জন সাংবাদিক নিহতের কথা বলা হয়েছে।

এদের মধ্যে ২০১৭ সালে নিহত হয়েছেন ৮৮ জন। নিহতদের মধ্যে ৪৬ জন দুর্নীতিবিষয়ক সংবাদকর্মী ছিলেন। আর ছয়জন ছিলেন নারী সাংবাদিক। এবং ২০১৮ সালের প্রথম চার মাসেই এক নারীসহ ৩২ জন সাংবাদিক নিহত হয়েছেন। গড় হিসাব করলে প্রতিমাসে বিশ্বজুড়ে নিহত হচ্ছেন ৮ জন সাংবাদিক।

২০১৭ সালের শেষ আট মাসে নিহত হন ৫৫ সাংবাদিক। তাদের বেশিরভাগকেই নির্দিষ্ট লক্ষ্য করে হত্যা করা হয়েছিল। তাদের অনুসন্ধান ছিলো দুর্নীতি নিয়ে, সেটা তারা প্রকাশও করে ফেলতেন।

এই বছরে স্লোভাকিয়াতে সরকারের দুর্নীতির অনুসন্ধান করতে গিয়ে নিহত হয়েছেন সাংবাদিক জ্যান কুসিয়াক। ২২ ফেব্রুয়ারি তার বাড়িতে মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এই হত্যাকাণ্ডের পর পদত্যাগে বাধ্য হন দেশটির প্রধানমন্ত্রী রবার্ট ফিকো।

আইপিআই’র ডেথ ওয়াচ প্রকল্প থেকে জানা গেছে, ১৯৯৭ সাল থেকে দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে এ পর্যন্ত নিহত হয়েছেন ১৮০১ জন সাংবাদিক। সবচেয়ে বেশি নিহত হয় ২০১২ সালে, ১৩৩ জন। ২০১৩ তে ছিলো ১২১ জন।

গত ১২ মাসে হত্যাকাণ্ডের শিকার সাংবাদিকদের মামলার অগ্রগতি হয়নি বলা যায়। সন্দেহভাজন কয়জনকে আটক করা হয়েছে, তদন্ত তেমন হয়নি। এই হতাহতের ঘটনার মধ্যে আছে স্লোভাকিয়ার ঘটনা, মালটায় গাড়িবোমা হামলা, ভারতে নিজ বাড়ির সামনে খুন হওয়া গরি লঙ্কেশ, মেক্সিকোর অনুসন্ধানী প্রতিবেদক জ্যাভিয়ের ভালদেস কার্দেনাসের মৃত্যু।

লাতিন আমেরিকায় সবচেয়ে বেশি সাংবাদিক হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছেন। তারা বেশিরভাগই সেখানকার মাদক পাচার ও দুর্নীতি নিয়ে কাজ করতেন। শুধু মেক্সিকোতেই নিহত হয়েছেন ১২ জন। সম্প্রতি মধ্যপ্রাচ্যেও সাংবাদিক হত্যার ঘটনা ঘটেছে। ইসরায়েলি বাহিনীর গুলিতে প্রাণ হারিয়েছেন ফিলিস্তিনি দুই সাংবাদিক।

নির্বাহী পরিচালক বারবারা ত্রিনোফি বলেন, সাংবাদিককে হত্যা করা হচ্ছে সংবাদকে দমিয়ে রাখার নৃশংসতম পন্থা। সত্য জানার অধিকার সবার আছে। আর এটা নিশ্চিত করার চেষ্টা করেন সাংবাদিকরা। ডেথ ওয়াচের মাধ্যমে আমরা দেখি, এই মৃত্যু শুধু সাংবাদিকের পরিবার, স্বজন ও বন্ধুদের জন্যই কষ্ট নয়, বরং গণতন্ত্রের জন্যও হুমকি নিয়ে এসেছে। ১৯৫০ সাল থেকে কাজ করা আইপিআই’ সব সরকারব্যবস্থাকে সাংবাদিকদের নিরাপত্তা দেওয়ার জন্য আহ্বান জানিয়ে আসছে।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

ব্রেকিং নিউজঃ