আইপিএল নিয়ে জুয়ার আসর

আইপিএল জুয়ায় তৎপরতা বাড়ছে বাজিকরদের

0

দিনাজপুর শহরে ভারতে অনুষ্ঠিত ‘ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগ’ আইপিএল ক্রিকেট জুয়ায় বাজিকরদের তৎপরতা দিন দিন বেড়েই চলেছে। শুধু শহরেই নয় ছড়িয়ে পড়েছে উপজেলাগুলোতেও। খেলছে ওরা, আর সর্বশান্ত হচ্ছে জনগণ। এ জুয়ায় নিম্ন আয়ের মানুষ থেকে বিত্তবান মানুষেরাও খেলছে।

তবে, ক্রিকেট জুয়াতে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের বেশি জড়িয়ে পড়ছে। বিকেল ৪টা বাজার সাথে সাথেই টিভিতে আবার কেউ মোবাইলে ইন্টারনেটের মাধ্যমে খেলা শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত বসে থাকে।

এদিকে, দিনাজপুর শহরের পশ্চিম বালুয়াডাঙ্গা (হঠাৎ পাড়া), পাহাড়পুর, বাহাদুর বাজার, কালিতলা, রামনগর, বালুবাড়ী, ঘাষিপাড়া, নিউটাউনসহ বিভিন্ন মহল্লায় এখন বিকেল হলেই জুয়ার আসর জমজমাট হচ্ছে। প্রতিটি হোটেলগুলোতেই এসব জুয়াড়ীরা তাদের ইচ্ছেমত বাজি ধরছে। অনেক এলাকায় এ জুয়াকে কেন্দ্র করে মারপিটের খবরও পাওয়া গেছে।

এসব ক্রিকেট জুয়ার আড্ডাখানা হচ্ছে চায়ের দোকান, মুদিখানাসহ হোটেলগুলো। কোন খেলোয়াড় কত রান করবে, কে কয়টা ছয় মারবে, আবার কোন দল জিতবে তার হিসাব নিকাশ আগেভাগেই করে রাখছে। কেউ কেউ মোবাইলে সব দামদর ঠিক করে রাখছে। এছাড়া ১ ওভারে কত রান করবে, ১০ ওভারে কয়টা উইকেট পড়বে এভাবেও বাজি ধরা হচ্ছে। এভাবে বাজি ধরা হচ্ছে লাখ লাখ টাকা পর্যন্ত। আর এসব বাজিকররা নিজেদের আড়াল করতে ১০০ টাকাকে ১ টাকা, ৫০০ টাকাকে ৫ টাকা, ১০০০ টাকাকে ১০ টাকা বলে থাকে। এই ক্রিকেট বাজিতে অনেকেই সর্বশান্ত হয়ে পড়ার খবর পাওয়া গেছে। কেউ আবার ঋণ নিয়ে হলেও জুয়া খেলা চালিয়ে যাচ্ছে। পরে ঋণের টাকা শোধ করতে না পারায় পড়তে হচ্ছে চরম ভোগান্তিতে।

এসব জুয়া বন্ধে প্রশাসন কোন প্রদক্ষেপ গ্রহণ না করায় সচেতন মহল ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ছেলেরা টাকা না থাকলে বাড়িতে চুরি করেও হলে এ ক্রিকেটে বাজি ধরছে। প্রশাসনের একটু নজর দিলেই এ জুয়া বন্ধ করা সম্ভব হবে বলে মনে করেন তারা।

দিনাজপুর পুলিশ সুপার হামিদুল আলম বলেন, ভারতে শুরু হয়েছে আইপিএল (টি-২০ ক্রিকেট)। এটা আনন্দদায়ক খেলা হলেও শহর থেকে গ্রাম পর্যন্ত অনেকেই জড়িয়ে পড়ছে বাজি ধরার জুয়ায়। এই বাজি ধরাটা অনেকটাই গোপনীয় ভাবে হয়। পুলিশের টহল টিম কাজ করছে। কিছু জুয়াড়ীকেও আটকও করা হয়েছে। পুলিশ এই ক্রিকেট জুয়াড়ীকে আটকের জন্য চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে।pbd.news

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

ব্রেকিং নিউজঃ