বাইরে তখন আকাশ ভেঙে বৃষ্টি। বৃষ্টিতে ভাসছে গোটা কলকাতা। আর ভিতরে তখন শাঁখ-উলুর যুগলবন্দি। লাল শাড়ি, গা ভর্তি সোনার গয়নায় নতুন বউ শুভশ্রী। সামনে দাঁড়িয়ে বর রাজ চক্রবর্তী। নতুন বউয়ের হাতে ভাত এবং কাপড় তুলে দিলেন রাজ।

হালকা সবুজ পাঞ্জাবিতে সেজেছেন রাজ। হাতে কাঁসার থালায় ভাত। সঙ্গে অনেকগুলো বাটিতে সাজানো বিভিন্ন পদ। বউভাতের দিন দুপুরে নতুন বউয়ের হাতে ভাত-কাপড় তুলে দিয়ে তাঁর সারা জীবনের দায়িত্ব নেওয়ার কথা বলেন বর। সেটাই বাঙালি বিয়ের রেওয়াজ। হাসিমুখে সবটাই পালন করলেন টলিউডের এই নতুন জুটি।

রাজ বললেন, ‘‘তোমার ভাত, কাপড়, গয়না, ভাল থাকার, ঝগড়া করার সব দায়িত্ব আমার। অ্যাকসেপটেড?’’ শুভশ্রীর চটজলদি উত্তর, ‘অ্যাকসেপটেড।’ পরে ফের রাজ বলেন, তাঁর এবং শুভশ্রীর পরিবার এবং বন্ধুদেরও ভাল রাখার দায়িত্ব তাঁর। সকলকে সাক্ষী রেখে তিনি এই কথা দিয়েছেন।

 

ঘরোয়া বউভাতের পর এ বার রিসেপশনের পালা। আরবানার বসছে জমকালো আসর। টলি পাড়া তো বটেই অন্যান্য ইন্ডাস্ট্রি থেকেও বেশ কিছু হেভিওয়েট এ দিনের অনুষ্ঠানে হাজির থাকবেন বলে খবর।