এক বছর ধরে এমন ঘটনা হয়ে চলেছে আমার সঙ্গে

0

প্রতি মাসে অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্রের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থেকে ৬,৫৫৬ টাকা করে কেটে নিচ্ছে এক ঋণ প্রদানকারী সংস্থান। অথচ পূর্বে এই সংস্থানের থেকে ইএমআই-তে কোনও জিনিসই কেনেননি নায়িকা। এমনকি লোনও নেননি।

অথচ গত একবছর ধরে এমনই ঘটনা হয়ে চলেছে তাঁর সঙ্গে। সম্প্রতি এমনই এক অভিযোগের ভিত্তিতে, আজ কসবা থানায় অভিযোগ দায়ের করলেন টলিউডের এই নায়িকা।

শ্রীলেখার দাবি, “গত বছর ডিসেম্বর থেকে এবছর মাস পর্যন্ত, আমার অ্যাকাউন্ট থেকে প্রতি মাসে ৬,৫৫৬ টাকা করে কেটে নেওয়া হত। এসএমএস আসত, ঠিকই কিন্তু কখনও খেয়াল করিনি৷

তার কারণটা হল যে লোন কোম্পানি থেকে লোন নেওয়া হচ্ছিল, তাঁদের থেকেই আমি মাস খানেক আগে টিভি কিনি। তাই ভেবেছিলাম তারই কোন কিস্তির মেসেজ হবে৷

কিন্তু পরে আমার খটকা লাগল এতবার টাকা কাটার ব্যাপারটা দেখে৷ যে জায়গা থেকে টাকা কাটা হচ্ছিল সেটা ট্রেস করাই৷ তারপরই বুঝলাম আমার নাম ভাঁঙিয়ে এসব করা হচ্ছিল।”

বিষয়টি বুঝতে পেরে প্রথমে, সোনারপুর থানায় অভিযোগ দাখিল করতে যান অভিনেত্রী। কিন্তু সেখানের পুলিশ অভিযোগ না নিলে তিনি কসবা থানায় আসেন।

নায়িকা বলেন, “গত বছর ডিসেম্বরে শ্রীলেখা মিত্রের নাম ‘ব্র্যান্ড নেম’ হিসেবে ব্যবহার, এক ঋণ প্রদানকারী সংস্থার থেকে ১ লক্ষের বেশি টাকার ধার নেন এক রূপচর্চা, লাইফস্টাইলের সংস্থান। তবে কীভাবে কার্ড নাম্বার পেল! সেটা নিয়ে এখনও ধোঁয়াশা কাটেনি আমার৷”

এখনও পর্যন্ত পাওয়া খবর অনুযায়ী, অভিনেত্রীর নাম করে যে রূপচর্চা সংস্থাটি ঋণ নিয়েছেন তার নাম জানা যায়নি। তবে ইতিমধ্যে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। খুব শিগগিরি দোষীদের খুঁজে বের করবেন বলে আশস্ত করেছেন শ্রীলেখাকে।

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

ব্রেকিং নিউজঃ