নওগাঁর মান্দা থানার সফল ওসি আনিসুর রহমান

0

রাজশাহী ব্যুরো : নওগাাঁর মান্দা উপজেলাকে সন্ত্রাস, জঙ্গীবাদ, মাদকমুক্ত করতে মান্দা থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আনিসুর রহমান এর নেতৃত্বে কাজ করে চলেছে মান্দা থানা পুলিশ। মান্দা থানায় যোগদান করার পর থেকেই মান্দার প্রতিটি গ্রামে গিয়ে মানুষকে সচেতন করছেন তিনি। স্কুল-কলেজসহ বিভিন্ন সমাবেশে শপথ বাক্য পাঠ করিয়ে ইতিমধ্যেই মাদকের ভয়াবহতা ও কুফল সম্পর্কে মানুষকে সচেতন করতে অগ্রণী ভূমিকা পালন করছেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ইন্সপেক্টর (তদন্ত) মাহবুব আলম বলেন “ওসি আনিসুর রহমান স্যারের নেতৃত্বে সন্ত্রাস, জঙ্গীবাদ, মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি অনুসরন করছে মান্দা থানা পুলিশ। মান্দা থানার মাদক ব্যাবসিকদের এক আতঙ্কের কারন আমাদের ওসি স্যার, ইতোমধ্যে দালাল ও ঘুষমুক্ত মান্দা থানায় চুরি, ডাকাতি, ছিনতাই শুন্যের কোঠায় নেমে এসেছে।”তিনি বলেন, “মাদক মামলায় আটক ব্যক্তিকে ছাড়িয়ে নিতে চিহ্নিত কিছু লোক প্রায় থানায় আসে, অনৈতিক সুপারিশ করে। এদের বিষয়ে আমরা খোঁজ-খবর রাখছি এবং মাদক ব্যবসার সাথে কোন প্রকার সংশ্লিষ্টতা আছে কিনা তা খতিয়ে দেখে দ্রæত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবো। ”

থানা সূত্রে জানা, মান্দা থানায় ২০১৮ সালের জানুয়ারী থেকে এপ্রিল পর্যন্ত বিভিন্ন অভিযান চালিয়ে আসামী গ্রেফতার হয়েছে এজাহার নামীয় ৭৫ জন, সন্দিগ্ধ ৩৬ জন সহ মোট ১১১ জন। মাদক মামলা রুজুকৃত সংখ্যা ৬৩টি এবং উদ্ধাকৃত মাদকের মধ্যে রয়েছে হেরোইন, ফেন্সিডিল, গাঁজা, চোলাই মদ, ইয়াবা।

জানতে চাইলে,মান্দা উপজেলার সতীহাট জি.এস বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক কাজী কামরুজ্জামান বলেন, ‘আমি জমি-জমা সংক্রান্ত একটি ঝামেলায় পড়েছিলাম, প্রতিপক্ষরা আমার জমির গাছ কেটে নিয়ে যাচ্ছিল। আমি থানায় ফোন করা মাত্র খুব দ্রæত সময়ের মধ্যে পুলিশ ঘটনা স্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে এবং দুপক্ষকে থানায় ডেকে মিমাংসা করে দিয়েছে। এর বিনিময়ে মান্দা থানা পুলিশ একটি টাকাও নেয়নি। থানার কালিকাপুর ইউনিয়নের বিলবয়রা গ্রামের ফরহাদ বলেন, “আমার এসএসসির মূল সার্টিফিকেট হারিয়েছে, আমি মান্দা থানায় একটি জিডি করলাম, কেউ টাকা চায়নি। ধন্যবাদ জানাই মান্দা থানা পুলিশকে। মৈনম ইউপির দূর্গাপুর গ্রামের সেকেন্দার আলী বলেন,“প্রতিপক্ষের বাধার কারনে আমরা বরেন্দ্রের খাল খনন করতে পারছিলামনা ওসি স্যারকে ফোন দিয়ে ঘটনা বলার ২০মিনিটের মাথায় পুলিশ ঘটনাস্থলে আসে এবং আমরা খালটি খননে সক্ষম হয়েছি।”

এ বিষয়ে মান্দা থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আনিসুর রহমান বলেন, ‘নওগাঁ জেলার সর্ববৃহৎ উপজেলা মান্দার লোক সংখ্যা প্রায় ৫লক্ষ। মান্দা উপজেলা তথা থানা নিয়ে সংসদীয় আসন ৪৯ নওগাঁ-৪(মান্দা) গঠিত। ২জন ইন্সপেক্টরের পাশাপাশি এ থানায় নিয়মিত কর্মরত এসআই-১৪,এএসআই-১১, কন্সটেবল-২৮। মাত্র ৫৫জন লোকবল নিয়ে ৫লক্ষ লোকের এতোবড় একটি থানাকে নিয়ন্ত্রন করা অনেক কঠিন কাজ । তিনি আরও বলেন, জনগন ও জন প্রতিনিধিদের সহযোগীতায় মাদকের বিরুদ্ধে সর্বাত্মক অভিযানসহ এযাবৎ আইন-সৃংখলা পরিস্থিতি গ্রহনযোগ্য পর্যায়ে রাখা সম্ভব হয়েছে।’

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

ব্রেকিং নিউজঃ