‘মাদক বিরোধী অভিযানে গডফাদারদেরও ছাড়া হবে না’: শেখ হাসিনা

0

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

বাংলাদেশে যে মাদক বিরোধী অভিযান চলছে তাতে কাউকেই রেহাই দেয়া হবে না বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এই অভিযান শুরুর পর এই প্রথম এ নিয়ে ঢাকায় এক সংবাদ সম্মেলনে এ বিষয়ে তাঁর সরকারের অবস্থান বিস্তারিতভাবে তুলে ধরেন তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে এ বিষয়ে তাকে বেশ কিছু প্রশ্নের মুখোমুখি হতে হয়।

শেখ হাসিনা বলেন, মাদকের বিরুদ্ধে অভিযানটি হঠাৎ করে শুরু হয়নি। অনেক দিন ধরে প্রস্তুতি চালিয়ে তার পরই সরকারের বিভিন্ন বাহিনী এর বিরুদ্ধে মাঠে নেমেছে। দীর্ঘদিন গোয়েন্দা সংস্থাগুলো এ নিয়ে কাজ করেছে।

“আমরা কিন্তু অপারেশনে খুব হঠাৎ করে যাইনি। হয়তো আপনাদের মনে হতে পারে যে হঠাৎ করে শুরু করেছে। ঘটনা কিন্তু তা নয়। দীর্ঘদিন থেকে নজরদারিতে রাখা হয়েছে, দেখা হয়েছে। কারা আনে। কোন কোন স্পট থেকে ঢুকছে। কোথা থেকে তৈরি হচ্ছে। কী হচ্ছে।”

তিনি আরও বলেন, “যেই গডফাদার থাকুক, সে যে বাহিনীতেই থাকুক, কাউকে কিন্তু ছাড়া হচ্ছে না, ছাড়া হবে না। আমি যখন ধরি, ভালো করেই ধরি। এটা তো ভালো করেই জানেন। কে কি, কার ভাই, কার চাচা সেটা কিন্তু দেখি না।”

উল্লেখ্য, বাংলাদেশে গত প্রায় এক মাস ধরে মাদক বিরোধী কঠোর অভিযান শুরু হওয়ার পর এই প্রথম প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে এ নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের মুখোমুখি হতে হয়। এই অভিযানে এরই মধ্যে শতাধিক মানুষ নিহত হয়েছে।

বাংলাদেশের নিরাপত্তা বাহিনী অনেক প্রস্তুতি নিয়ে এই অভিযানে নামে।

সংবাদ সম্মেলনে একজন সাংবাদিক প্রশ্ন করেছিলেন, মাদক বিরোধী অভিযানে সরকারি বাহিনী যেভাবে অস্ত্র ব্যবহার করছে তাতে অনেকেই মনে করছেন যে সেখানে এর অপপ্রয়োগ হতে পারে। নিরীহ লোকও ভিক্টিম হতে পারে। এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর মন্তব্য কী?

জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এ পর্যন্ত যত ঘটনা ঘটেছে, তার মধ্যে একটা ঘটনাতেও যদি কেউ দেখাতে পারেন যে কোন নিরীহ ব্যক্তি এর শিকার হয়েছেন, সরকার নিশ্চয়ই তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে।

মাদক বিরোধী অভিযানে প্রায় দশ হাজার লোককে গ্রেফতার করা হয়েছে এবং অনেককে বিচারের মুখোমুখি করা হয়েছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, এসব বিষয় উল্লেখ না করে অন্য বিষয়গুলোকে সামনে নিয়ে আসা হচ্ছে।

“আপনারা জানেন যে মাদক একটা ব্যাধির মতো। আপনারাই পত্রিকায় লিখেছেন এই মাদকের বিরুদ্ধে। আজকে যখন অভিযান চলছে, তখন আপনারা কোনটা কিভাবে হচ্ছে না হচ্ছে তার পুঙ্খানুপুঙ্খ বিচার শুরু করেছেন। কোনটা চান? অভিযান চলুক? নাকি বন্ধ হয়ে যাক?”

“একটা অভিযান চালাতে গেলে যদি কোন ঘটনা ঘটে, যদি সেটাই বড় করে দেখান, তাহলে বলেন এটা বন্ধ করে দেই।”।

শেখ হাসিনা বলেন, মাদক বিরোধী অভিযান যেটা চলছে, তাতে সারা দেশের মানুষ কিন্তু স্বস্তি পাচ্ছে। এটা কিন্তু মানুষের দাবি। কাজেই এটা চলবে।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

ব্রেকিং নিউজঃ