বিএনপির মেয়র প্রার্থীর দাম ১০ কোটি টাকা

0

আসন্ন তিন সিটি নির্বাচনে মেয়র পদে বিএনপির মনোনয়ন পেতে হলে ১০ কোটি টাকা তারেক জিয়াকে দিতে হবে। এই তিন সিটিতে যারা নূন্যতম এই টাকা দিতে পারবেন, তারাই মেয়রপদে বিএনপির টিকিট পাবেন। তারেক জিয়া লন্ডন থেকে এই বার্তা দিয়েছেন বলে দলের দায়িত্বশীল একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে। তারেক জিয়ার এই বার্তার পরপরই রাজশাহীর মেয়র এবং বিএনপি নেতা মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল নির্বাচনী প্রচারণায় নেমে পড়েছেন। বুলবুল তাঁর ঘনিষ্ঠদের বলেছেন, টাকার ব্যবস্থা হয়ে গেছে, লন্ডনে টাকা পৌঁছে যাবে। তারেক জিয়ার সঙ্গে বুলবুলের টেলিফোনে আলাপের পরপরই তাঁর লোকজনের মধ্যে কর্মচাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে।

বিএনপির সূত্রগুলো বলছে, তারেক জিয়ার প্রস্তাবে বুলবুল রাজি হলেও অন্য দুটি সিটি করপোরেশন বরিশাল এবং সিলেট মেয়ররা এখনো সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি। ঐ দুই সিটিতেও বিএনপির নেতারাই মেয়র পদে বহাল আছেন। বরিশালে আসনে হাবিব কামাল এবং সিলেটে আরিফুল হক চৌধুরী দুজনই নির্বাচনের জন্য তারেককে টাকা দেওয়ার ব্যাপারে দ্বিধাদ্বন্দ্বে আছেন। তাঁরা দুজনই তাদের ঘনিষ্ঠদের বলেছেন, গত নির্বাচনের পর মেয়র পদে ঠিক মতো বসতেই পারিনি। মামলা আর জেলে মেয়রকাল পার হয়ে গেছে। এত টাকা পাব কোথায়? কিন্তু ঢাকায় তারেক জিয়ার লোকজন জানিয়ে দিয়েছেন, টাকা ছাড়া মনোনয়ন পাওয়া যাবে না।

উল্লেখ্য, এর আগে, গাজীপুর নির্বাচনে বর্তমান মেয়র অধ্যাপক আবদুল মান্নানের কাছে ২০ কোটি টাকা চেয়েছিলেন তারেক জিয়া। কিন্তু আব্দুল মান্নান ঐ টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানালে, মান্নানের বদলে হাসান উদ্দিন সরকারকে মনোনয়ন দেওয়া হয়। খুলনাতেও মেয়র পদ ৫ কোটি টাকায় বিক্রি হয়েছিল বলে জানা গেছে। এখন, ৩০ জুলাই অনুষ্ঠেয় তিন সিটি নির্বাচনে বিএনপির মনোনয়ন কারা পায়, সেটাই দেখার বিষয়।

বিএনপির একজন নেতা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেছেন, ‘শুধু মনোনয়ন নয়, কমিটি করতেও তারেক মোটা অংকের টাকা নিচ্ছেন। ফলে, মনোনয়ন এবং কমিটি দুটোতেই বাদ পরছেন দলের পরীক্ষিত ত্যাগী কর্মীরা। এ কারণেই বিএনপি সাংগঠনিক ভাবে ক্রমশ: দুর্বল হয়ে পড়েছে।’

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

ব্রেকিং নিউজঃ