চাঁপাইনবাবগঞ্জে বৃদ্ধা তহমিনার একাকী জীবন

0

ডি এম কপোত নবী :

ইচ্ছে থাকলে উপায় হয় তা আরো একবার দেখা মিলল চাঁপাইনবাবগঞ্জের ১৫ নং ওয়ার্ডে। ম্যাথরপাড়া মোড়ে শতবর্ষী এ বৃদ্ধা কলাই এর রুটি বিক্রি করেন। ভিক্ষার জুলি হাতে না নিয়ে বৃদ্ধ বয়সেও কাজ করে জীবনযাপন করছেন।

বর্তমানে তিনি আরাম বাগের একটি বাসাতে এক হাজার টাকা বাড়ি ভাড়া করে থাকেন। বৃদ্ধার নাম তহমিনা। বয়স সে বলে ১০০ উপর হবে। দেখেই তাই মনে হয়। এত বয়স হলেও তাঁর চোখ এর গতি কমেনি কিংবা চলার শক্তিও কমেনি। দিব্যি বেঁচে থাকার তাগিদে কাজ করে জীবন যাপন করছেন।

নিজের জন্মস্থান নাচোলের চৌডালায়। স্বামী সেই ৩০-৩৫ বছর আগে মারা গেছে। রয়েছে বৃদ্ধার ২ টি ছেলে। কিন্তু তারা তাদেরমত জীবন যাপন করছেন। কেউ মায়ের খোঁজ নেয় না। অথচ ছোট ছেলেকে ভাল করতেই তহমিনা চাঁপাইনবাবগঞ্জ শহরে এসেছিলেন। শহরে রিক্সা চালিয়ে রোজগার ভাল হয় তাই ছোট ছেলেকে নিয়ে বাড়ি ভাড়া করে থাকতে থাকেন। কিছুদিন পর ছেলে নিজেরমত বিয়ে করে অন্যত্র চলে যায়। আর বড় ছেলে অনেক আগেই নিজের বাড়িতে নিজের মত করেই আছে।

রাগে দুঃখে আর অভিমানে নিজ বাড়ি নাচোলের চৌডালায় ফিরে যান নি। এ ঘটনা সেই ১২ বছর আগের। ১২ বছর ধরে জীবনের সাথে যুদ্ধ করে বেঁচে আছেন তহমিনা। কিছুদিন আগে তহমিনার সাথে কথা হলে জানান, এখন আর আগের মত শরীরে কুলায় না। তাই বসে বসে কলাই এর রুটি বিক্রি করি। সেটা থেকেই যা রোজগার হয় কোন রকমে দিন চলে যাচ্ছে। রুটি বিক্রি করে ১০০-১২০ টাকার বিক্রি করি। আর যেদিন খারাপ দিন যায় ৬০-৭০ টাকা মত হয়। অভিমানের সুরে তহমিনা বলেন, এ টাকাতে কি আর হয় বল বাপু। অনেকে আমাকে সাহায্য করে। যে যে ভাবে পারে দেয়। কেউ চাল কিনে দেয়, কেউ আটা কিনে দেয়, কেউ ফলমুল কিনে দেয়।

বিধবা কিংবা বয়স্কভাতা পান কি না জানতে চাইলে বৃদ্ধা তহমিনা জানান, আমি এখানকার মানুষ না এ জন্য আমাকে কেউ গুনতির ভেতর ধরে না। আমি তো এ দেশেরি মানুষ। দেশেই তো আছি। দেখ না বাপু আমার জন্য পৌরসভাতে বলে কিছু ব্যবস্থা করে দেয়া যায় কি না।

এমন জীবন যুদ্ধে পথ চলা তহমিনা কে দেখে শেখার আছে অনেক কিছুই। শহরে প্রশাসন আছেন, আছেন অনেক বড় বড় শিল্পপতি। এদের কেউ যদি একটু সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয় তাহলেই হয়ত শতবর্ষী তহমিনা বাদবাকী জীবনটা একটু ভাল ভাবে কাটিয়ে যেতে পারবে।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

ব্রেকিং নিউজঃ