যারা ফাইনাল খেলবে

0

আগামীকাল আর্জেন্টিনা ও ফ্রান্সের মধ্যকার ম্যাচ দিয়ে শুরু হতে যাচ্ছে নক আউট পর্ব। বিশ্বকাপের আসল উত্তেজনা শুরু হবে কাল থেকেই। আসুন গ্রুপ পর্বের খেলা ও নানাদিক বিশ্লেষণ করে কারা যেতে পারে ফাইনালে সেটা দেখে নেই।দ্বিতীয় রাউন্ড
ফ্রান্স-আর্জেন্টিনা
ফ্রান্স গ্রুপ পর্বে দুর্দান্ত খেলেছে। বলতে গেলে প্রায় বিনা বাধায় দ্বিতীয় রাউন্ড নিশ্চিত করেছে। অন্যদিকে আর্জেন্টিনা ধুঁকতে ধুঁকতে দ্বিতীয় রাউন্ড নিশ্চিত করেছে। ফ্রান্সের ও আর্জেন্টিনার গ্রুপ পারফরম্যান্সের ওপর ভিত্তি করে ফ্রান্সের সম্ভাবনা রয়েছে কোয়ার্টার ফাইনালে যাওয়ার।

উরুগুয়ে-পর্তুগাল
উরুগুয়ে ও পর্তুগালের ম্যাচটি একটি জমজমাট ম্যাচ হতে যাচ্ছে। কেননা বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত একটি গোলও হজম করেনি উরুগুয়ে। অন্যদিকে পর্তুগালের রোনালদো রয়েছেন সেরা ফর্মে। গ্রুপ পর্বে স্পেনের সঙ্গে ড্র করেছেন। দ্বিতীয় ম্যাচে তাঁর গোলেই জয় পায় পর্তুগাল। তবে শক্তি ও সামর্থ্যের বিচারে পর্তুগালের সম্ভাবনা রয়েছে পরবর্তী রাউন্ডে যাওয়ার।

ব্রাজিল-মেক্সিকো
ব্রাজিল মেক্সিকোর ম্যাচে সব দিক থেকেই এগিয়ে থাকবে ব্রাজিল। যদিও বেশ প্রতিরোধের মধ্যেই পড়তে হবে ব্রাজিলকে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত জয়টা ব্রাজিলের হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি।

বেলজিয়াম- জাপান
বেলজিয়াম দুর্দান্ত খেলে দ্বিতীয় রাউন্ড নিশ্চিত করেছে। অন্যদিকে জাপান প্রায় ধুঁকতে ধুঁকতে দ্বিতীয় রাউন্ড নিশ্চিত করে। শক্তি ও সামর্থ্যের উপর ভিত্তি করে বেলজিয়াম অনেক এগিয়ে। কোন অঘটন না ঘটলে কোয়ার্টার ফাইনালে বেলজিয়াম নিশ্চিত।

স্পেন-রাশিয়া
স্পেন সব দিক থেকে রাশিয়ার থেকে এগিয়ে। যদিও স্পেন তাঁদের সেরা খেলাটা এখনও দিতে পারেনি। সেই হিসেবে স্পেন সেরা খেলাটা দিতে মুখিয়ে রয়েছে। স্পেনের প্রায় ৬০ ভাগ সম্ভাবনা রয়েছে কোয়ার্টার ফাইনালে যাওয়ার।

ক্রোয়েশিয়া-ডেনমার্ক
ক্রোয়েশিয়া গ্রুপ পর্বে দুর্দান্ত খেলছে। আর্জেন্টিনার মতো শক্তিশালী দলকে ৩-০ গোলে হারিয়েছে। ডেনমার্ক দ্বিতীয় রাউন্ড নিশ্চিত করলেও ক্রোয়েশিয়া থেকে বেশ পিছিয়ে রয়েছে পারফরম্যান্সের বিচারে। সেই হিসেবে ক্রোয়েশিয়ার বেশ সুযোগ রয়েছে কোয়ার্টারে যাওয়ার।

সুইডেন-সুইজারল্যান্ড
সুইডেন ও সুইজারল্যান্ড গ্রুপ পর্বে বলতে গেলে একই ধাঁচের খেলেছে। যদিও সুইডেন জার্মানির সঙ্গে বেশ ভাল খেলেই শেষ মুহূর্তে এসে হেরে যায়। এছাড়া মেক্সিকো সুইডেনকে ৩-০ গোলে হারিয়েছে। সব দিক বিবেচনায় সুইডেন বেশ এগিয়ে থাকবে পরের রাউন্ডে যাওয়ার ক্ষেত্রে।

ইংল্যান্ড-কলম্বিয়া
ইংল্যান্ড দুর্দান্ত ফর্মে রয়েছে এবারের বিশ্বকাপে। সবচেয়ে বেশি অবশ্য উজ্জ্বল ছিলেন হ্যারি কেইন। খুব সহজেই তারা দ্বিতীয় রাউন্ড নিশ্চিত করে। কলম্বিয়া ২০১৪ বিশ্বকাপে দুর্দান্ত খেললেও তাঁর ছিটেফোঁটা এবারের বিশ্বকাপে দেখা যাছে না। তাঁদের তারকা ফুটবলার হেমাস রদ্রিগাস ইনজুরি নিয়ে বিশ্বকাপ খেলছে। সব কিছু মিলিয়ে ইংল্যান্ড যাচ্ছে পরের রাউন্ডে।

কোয়ার্টার ফাইনাল
দ্বিতীয় রাউন্ডের হিসাব অনুযায়ী কোয়ার্টারে ফ্রান্সের মুখোমুখি হবে পর্তুগাল। দল হিসেবে ফ্রান্স তারকা ঠাসা একটি দল। সেই হিসেবে পর্তুগালকে হারিয়ে ফ্রান্স যাবে সেমিতে।

অন্যদিকে নিজ অবস্থান থেকে দ্বিতীয় রাউন্ডে জয় পেলে ব্রাজিল ও বেলজিয়ামের দেখা হবে কোয়ার্টার ফাইনালে। ব্রাজিল শক্তি ও সামর্থ্যের বিচারে সেমি নিশ্চিত করতে পারে।

এদিকে স্পেন-রাশিয়া ও ক্রোয়েশিয়া-ডেনমার্কের দ্বিতীয় রাউন্ড থেকে স্পেন ও ক্রোয়েশিয়ার দেখা হবে কোয়ার্টার ফাইনালে। সেই হিসেবে স্পেন ক্রোয়েশিয়া থেকে এগিয়ে থেকে সেমি নিশ্চিত করবে।

অপর দিকে দ্বিতীয় রাউন্ডের হিসাব অনুযায়ী সুইডেন ও ইংল্যান্ডের দেখা হবে কোয়ার্টার ফাইনালে। সুইডেনকে হারিয়ে সেমিতে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে ইংল্যান্ডের ।

সেমি ফাইনাল
কোয়ার্টার ফাইনালের হিসেব অনুযায়ী ফ্রান্সের মুখোমুখি হবে ব্রাজিল। আরেক সেমি ফাইনালে স্পেনের মুখোমুখি হবে ইংল্যান্ড।

প্রথম সেমি ফাইনালে ব্রাজিলের ফ্রান্সকে হারিয়ে ফাইনালে যাওয়ার সম্ভাবনা অনেক। অন্যদিকে ইতিহাসের কারনে ইংল্যান্ড স্পেনের কাছে বাদ পড়তে পারে। ইতিহাস বলে নক আউট পর্বে সবচেয়ে বেশিবার ইংল্যান্ড পেনাল্টি থেকে বাদ পড়েছে।

তৃতীয় নির্ধারণী ম্যাচ
বাদ পড়া দুই দল অর্থাৎ ফ্রান্স ও ইংল্যান্ডের মধ্য হবে তৃতীয় নির্ধারণী ম্যাচ। এখানে ইংল্যান্ডের জয়ের সম্ভাবনা রয়েছে। সেই হিসেবে তৃতীয় হবে ইংল্যান্ড। চতুর্থ দল হিসেবে নাম লিখাতে পারে ফ্রান্স।

ফাইনাল
সব কিছুর শেষে ফাইনাল। ফাইনাল হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে ব্রাজিল ও স্পেনের মধ্যে। ব্রাজিল ও স্পেনের মধ্যে কারা জিতবে বা কারা এগিয়ে থাকবে সেটা বলা না গেলেও সমর্থকরা নিশ্চিত ভাবে দুর্দান্ত একটি ফাইনাল উপভোগ করবে।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

ব্রেকিং নিউজঃ