বিশ্বরোড থেকে দ্বারিয়াপুর পর্যন্ত অবৈধস্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান

0

চাঁপাইনবাবগঞ্জে রবিবার থেকে ২ দিনের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান চালিয়েছে সড়ক ও জনপথ বিভাগ। রবিবারের অভিযানে শান্তি মোড় থেকে বারঘরিয়া হয়ে রসুলপুর মোড় পর্যন্ত চাঁপাইনবাবগঞ্জ-সোনামসজিদ মহাসড়কের দু পাশের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়। অপরদিকে সোমবার সকাল থেকে অক্ট্রয় মোড়, বিশ্বরোড দ্বারিয়াপুর পর্যন্ত মহাসড়কের দুপাশের অবৈধস্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে। উচ্ছেদ অভিযানে উপস্থিত ছিলেন, মো. মাহবুবুর রহমান ফারুকী (উপ-সচিব), নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট এবং এস্টেট ও আইন কর্মকর্তা সওজ, ঢাকা জোন।

এ-সময় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাসুদুর রহমান মাসুদ, চাঁপাইনবাবগঞ্জ সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী এ জেড. এম ফারহান দাউদ উপস্থিত ছিলেন।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী এ জেড. এম ফারহান দাউদ জানান, সোমবার বিশ্বরোড থেকে দ্বারিয়াপুর ও অক্ট্রয় মোড় এলাকার ছোটবড় অসংখ্য অবৈধস্থাপনাগুলো উচ্ছেদ করা হয়েছে। রাস্তার দুধারে অবৈধভাবে নির্মিত দোকানপাটসহ বিভিন্ন ধরণের ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান উচ্ছেদ করা হয়।

সড়ক ও জনপদ বিভাগের রাস্তার দুপাশের জমির উপরে দীর্ঘদিন ধরে এক শ্রেণির মানুষ অবৈধভাবে স্থাপনা তৈরি করে ব্যবসা চালিয়ে আসছিলেন। ফলে বিৃদ্ধ পাওয়া যান চলাচলে বিঘœ সৃষ্টি হচ্ছিল। সড়কের প্রশস্ততা বৃদ্ধির লক্ষে সড়ক ও জনপথ বিভাগের পক্ষ থেকে গণবিজ্ঞপ্তি জারি করা হয় কিন্তু গড়ে তোলা দোকনাপাটের মালিকরা সরিয়ে না নিলে রবিবার থেকে উচ্ছেদ অভিযান শুরু হয়। যেসমস্ত স্থানে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে এরমধ্যে বারোঘরিয়া, মহারাজপুর হাট, মহারাজপুর ঘোড়াস্ট্যান্ড, বোলতলা, রানীহাটি বাজার, বহলাবাড়ি মোড়, ছত্রাজিতপুর বাজার ও রসুলপুর মোড়।

এছাড়া সোমবার শাহনেয়ামতুল্লাহ কলেজ মোড়, হরিপুর মোড় ও দ্বারিয়াপুর মোড় অক্ট্রয় মোড় এলাকায় উচ্ছেদ অভিযান চালিয়ে অবৈধ স্থাপনা সরিয়ে দেয়া হয়েছে। উচ্ছেদ অভিযানের সময় ঘোষণা দেয়া হয় আগামী ৩ দিনের মধ্যে সড়ক ও জনপদ বিভাগের আওতায় রাস্তার দুপাশের যেসমস্ত দোকানপাট রয়ে গেছে তা যেন সরিয়ে নেয়া হয়। এদিকে উচ্ছেদ অভিযানের সময় প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, সড়ক ও জনপদ বিভাগের উচ্ছেদ অভিযান চালানোর জন্য সাধারণ মানুষ ও পথচারীদের মাঝে স্বস্তি ফিরে এসেছে। তারা এও বলেন, উচ্ছেদের নামে যেন কেউ যেন হয়রানির শিকার না হয় সে দিকেও লক্ষ রাখতে হবে।


এ ব্যাপারে পুলিশ সুপার টি এম মোজাহিদুল ইসলাম বিপিএম বলেন, অবৈধ ভাবে গড়ে উঠা বহু স্থাপনার জন্য সাধারণ মানুষ ও জণসাধারণের চলাচলের বিঘœ সৃষ্টি হচ্ছিল। সড়ক দুর্ঘটনার হারও বেড়ে যাচ্ছিল। রাস্তায় হাঁটার সময়ও সমস্যার সৃষ্টি হত। তিনি আরো বলেন, কয়েক মাস আগে আমি নিজে উপস্থিত থেকে শহরের গুরুত্বপূর্ণ পুরাতন বাজারের অবৈধ স্থাপনা সরিয়েছি। আমার কাজ তো আমি করেছি, এখন আপনারা বাকী কাজটা করবেন যেন আর কেউ সে সব স্থানে বসতে না পারে।

উল্লেখ্য, চাঁপাইনবাবগঞ্জে যানবাহনের সংখ্য ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। ট্রাক, বাস-মিনিবাস, মিশুক, সিএনজি, অটো রিকশা ও রিকশাসহ অন্যান্য অবৈধ যানবাহন মহাসড়কে চলাচল করায় একদিকে জনসাধারণের যেমন যাতায়াত ব্যবস্থা সহজ হয়েছে অন্যদিকে তেমনি সড়কের পাশে স্থাপনা থাকায় অপ্রশস্ত সড়কে দুর্ঘটনা ঘটছে। এমন অবস্থায় সড়কের দুধারের স্থাপনা সরিয়ে ফেলতে উচ্ছেদ অভিযান শুরু করে সড়ক ও জনপথ বিভাগ।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

ব্রেকিং নিউজঃ