সন্তান যে এখনো রাস্তায় আছে তারা নিরাপদ নাও থাকতে পারে : র‌্যাব ডিজি

0

বেনজীর বলেন, কিছুক্ষণ আগে আমরা র‌্যাব-১ এর সামনে একটা ছাত্রকে আরও কিছু লোকজন দ্বারা মারপিট করতে দেখেছি। তার মানে হচ্ছে এই আন্দোলনে বিভিন্ন ধরনের মানুষ ও গোষ্ঠী ঢুকে গেছে। এই সুযোগে তারা স্বার্থ উদ্ধারের চেষ্টা করছে। আমরা অভিভাবকদের বলতে চাই, তাদের যে সন্তান এখনো রাস্তায় আছে তারা নিরাপদ নাও থাকতে পারে। এই সুযোগে যেসকল সন্ত্রাসী রাস্তায় নেমেছে, সেসকল সন্ত্রাসী যে কোনো সময় যে কারো ক্ষতির কারণ হতে পারে।

আমরা অনুরোধ জানাই, অভিভাবকগণ তাদের প্রিয় সন্তানদের স্বার্থে তাদেরকে রাস্তা থেকে সরিয়ে নেবেন। একই সঙ্গে প্রত্যেকটি স্কুল ও প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষকসহ শিক্ষকমণ্ডলীকে অনুরোধ জানাবো, নিজ নিজ স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীরা যাতে কোনোক্রমে রাস্তায় না নামতে পারে তা নিশ্চিত করবেন। কেউ রাস্তায় আসলেও দয়া করে ফেরত নিয়ে যাবেন। ছাত্রদের স্থান শ্রেণিকক্ষ। শিক্ষকগণ সে ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন। একই আহ্বান জানাবো স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও সদস্যদের প্রতি। তাদের ছাত্রছাত্রীরা যেন রাস্তায় না আসেন। আসলেও যেন শ্রেণিকক্ষে ফিরিয়ে নেন।

বৃহস্পতিবার বিকেলে চলমান পরিস্থিতি নিয়ে র‌্যাব সদর দফতরে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে একথা বলেন তিনি।

তিনি আরও জানান, কিছু কিছু প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদেরও রাস্তায় দেখা গেছে। তাদেরকেও আমরা অনুরোধ করবো। গণতান্ত্রিক দেশ হিসেবে যে ধরনের আইনি কার্যক্রম নেয়া দরকার ছিল তা নেয়া হয়েছে। সুতরাং তোমরা ফিরে যাও। কর্তৃপক্ষদের অনুরোধ করবো। তাদের শিক্ষার্থীরা যেন পড়াশুনায় মনোনিবেশ করেন।

ফেসবুকে ও সোশ্যাল মিডিয়ায় বিভিন্ন ধরনের উদ্ভট, গুজব ছড়ানো হচ্ছে। মিথ্যা সংবাদ প্রচার করা হচ্ছে। কেউ কোনো ধরনের গুজবে কান দেবেন না। কোনো ধরনের গুজবের কারণে বিপথে পরিচালিত হবেন না।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

ব্রেকিং নিউজঃ