আমার কোনো প্রকার ক্ষতি হলে সম্পূর্ণভাবে অপু বিশ্বাস দায়ীঃ বুবলী

0

কোনো প্রকার ক্ষতি হলে- অপু বিশ্বাস আমার কাজে বাধা সৃষ্টি করছেন। ক্রমাগত আমাকে হুমকি দিয়ে যাচ্ছেন। আমার কোনো প্রকার ক্ষতি হলে অপু বিশ্বাস সম্পূর্ণভাবে দায়ী থাকবেন। এটা আমি আপনাদের (সাংবাদিকদের) ইনফর্ম করে রাখছি। এভাবেই কথাগুলো বলছিলেন এ সময়ের এই জনপ্রিয় অভিনেত্রী।

বর্তমানে বাংলাদেশ চলচিত্র জগতের অন্যতম জনপ্রিয় একজন নায়িকা শবনম ইয়াসমিন বুবলী। নিজের ক্যারিয়ার সংবাদ পাঠিকা হিসেবে শুরু করলেও শাকিব খানের মাধ্যমে চলে আসেন সিনেমা জগতে। এবং ধীরে ধীরে হয়ে উঠেন জনপ্রিয়। কিন্তু তিনি মিডিয়ার থেকে নিজের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে বেশি সমালোচিত।

দীর্ঘদিন পর দেশে ফিরেই অপু বিশ্বাস বিতর্কে লিপ্ত হয়ে পড়েছেন- এমনটাই জানা গেছে। জানা গেছে, অপু বিশ্বাস আজ রবিবার বুবলীর ব্যক্তিগত মোবাইল ফোনে ফোন দিয়ে হুমকি দিয়েছেন। কেন এসব হুমকি?

শাকিব খানকে কেন্দ্র করেই অপু বিশ্বাস এসব ঘটাচ্ছেন বলে জানা গেছে। এ বিষয়ে বুবলি বলেন, শাকিব খানের বিষয়ে তার কোনো বক্তব্য থাকলে সেটা তিনি তাকে (শাকিব খান) বলতে পারেন। তিনি আমাকে কেন ফোন দিয়ে অকথ্য ভাষায় কথা বলবেন?

এই হুমকির বিষয়ে আইনগত কোনো পদক্ষেপ নেওয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, আসলে আমি খুব ধীরস্থির মানুষ। আমাকে সব বিষয় নিয়ে অগ্রসর হতে হলে একটু চিন্তা-ভাবনা ও পরিবারের সাথে কথা বলে এগোতে হবে।

তিনি বলেন, শুধু আমার সাথেই নয়, এর আগেও একজন লাক্স তারকাকে ঘিরে শাকিবের সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করেছিল অপু বিশ্বাস। এমনকি সেই লাক্স তারকাকে অপদস্ত হতে হয় তার কাছে।

মনে হচ্ছে, আমার ক্ষেত্রেও সেই ঈর্ষা কাজ করছে অপুর। সবচেয়ে বড় কথা, একজন শিল্পী হয়ে আরেকজন শিল্পীকে এভাবে শাসানো গালিগালাজ কোনোভাবেই কাম্য নয়।

বুবলী আরও বলেন, অপু বিশ্বাসের মতো মানুষের প্রতি আমার অনেক রেসপেক্ট ছিল। কিন্তু তার মুখের ভাষা শুনে আমি আমার নিজের ভাষাই হারিয়ে ফেলেছি।

একজন স্বাভাবিক মানুষের কথা এমন অকথ্য হয় কীভাবে? তিনি যেসব ভাষা ব্যবহার করেছেন তা মুখে আনার মতো না। আমি সবকিছুই রেকর্ড করে রেখেছি। যদিও কোনোভাবেই আমি সেসব মানুষকে শোনাতে চাই না তবে প্রয়োজন হলে অবশ্যই শোনাব।

আপন ভাইকে নিয়েও শান্তিতে নেই বুবলী

ক্যারিয়ারের দুর্দান্ত সময় কাটানো নায়িকা বুবলী শান্তিতে নেই। হঠাৎ করেই এ অভিনেত্রীর কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। জানা যায়, গণমাধ্যমকর্মীদের ফোনও ধরছেন না।

খোঁজ নিয়ে জানা গেল, ‘একটি প্রেম দরকার’ সিনেমার শুটিংয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন তিনি। শুটিং হচ্ছে শাকিবের জান্নাতে। তাহলে ফোন ধরছেন না কেন! এমন প্রশ্নে এক বার্তা পাঠালেন বুবলী, তিনি এখন মানসিকভাবে কথা বলার অবস্থায় নেই। প্রচন্ড মানসিক অশান্তিতে আছেন। কেন এই অবস্থা সে বিষয়ে অবশ্য খোলাসা করে কিছু বলেননি।

তবে অনেকটা আঁচ পাওয়া গেছে, ভাইয়ের কারণেই এমনটা হতে পারে ঢালিউডের বর্তমান কুইনের। সি‌নেমার গ‌ল্পের ম‌তোই হঠাৎ তু‌খোড় মেধাবী হ‌য়ে গেল না‌য়িকা বুবলীর ছোট ভাই জাহিদ হাসান আকাশ। গ ইউনিটের পরীক্ষায় যে পাসই করেনি, আর ঘ ইউ‌নি‌টে প্রথম।

জাহিদ হাসান আকাশ ব্যবসায় শিক্ষা শাখা থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা দিয়েছেন। গত ১২ অক্টোবর তিনি ঢাবির সমাজ বিজ্ঞান অনুষদে ভর্তির জন্য ঘ ইউনিটে পরীক্ষা দেন। সেখানে ব্যবসায় শাখা বিভাগে প্রথম স্থান অধিকার করেছেন। অথচ ব্যবসায় শিক্ষা শাখার এই শিক্ষার্থী বাণিজ্য অনুষদে ভর্তির জন্য দেওয়া গ ইউনিটের পরীক্ষায় ফেল করেছিলেন।

ঢাবির গ ইউনিটের পরীক্ষায় ফলাফলে দেখা যায় তিনি বাংলায় পেয়েছিলেন ১০.৮, ইংরেজিতে পেয়েছিলেন ২.৪০। অথচ এই শিক্ষার্থী ঘ ইউনিটের পরীক্ষায় বাংলায় ৩০ এর মধ্যে ৩০, ইংরেজিতে ৩০ এর মধ্যে ২৭.৩০ পেয়েছেন। যা রেকর্ডই বলা যায়।

ব্যবসায় শিক্ষা শাখা থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পাস করে আসা এই শিক্ষার্থী ঢাবির গ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় সর্বমোট ১২০ নম্বরের মধ্যে পেয়েছিলেন ৩৪.৩২। অথচ মাত্র এক মাসের ব্যবধানে ঘ ইউনিটের পরীক্ষায় মোট ১২০ নম্বরের মধ্যে তিনি ১১৪.৩০ পেয়ে সম্মিলিত মেধাতালিকার বাণিজ্য শাখায় প্রথম স্থান অধিকার করেছেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিসংখ্যান বলছে, গত ২০ বছরে ১২০ এর মধ্যে ১১৪.৩০ কেউ পায়নি। দ্বিতীয় স্থানে যিনি রয়েছেন তিনি ১২০ এর মধ্যে পেয়েছেন ৯৮.৪০। মেধাক্রমে যার ব্যবধান অনেক।

উল্লেখ্য, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ঘ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের পুনরায় ভর্তি পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। ঢাকা বিশ্ববিদ্যলয়ের ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক সম্মান শ্রেণিতে সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁসে জড়িত অভিযোগে ছয়জনকে গ্রেপ্তারও করেছে পুলিশ।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

ব্রেকিং নিউজঃ