চাঁপাইনবাবগঞ্জে হত্যা মামলায় ১ জনের ফাঁসি, ৫ জনের যাবজ্জীবন

0

চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুরে রফিকুল ইসলাম হত্যা মামলায় ১ জনের মৃত্যুদণ্ড ও ৫ জনের যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত।

সোমবার (৫ নভেম্বর) দুপুরে অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক শওকত আলী এই রায় দেন। মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি নিরঞ্জন উরাও গোমস্তাপুর উপজেলার কাসরইল এলাকার সমর উরাওয়ের ছেলে।

যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- একই এলাকার সমর উরাওয়ের ছেলে গনেশ উরাও ও দশরথ উরাও, রবিয়া উরাওয়ের ছেলে সাবানু উরাও, মৃত. বিশ্বনাথ উরাওয়ের ছেলে বধুয়া উরাও এবং রাইয়া উরাওয়ের ছেলে সমরা উরাও।

দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি বধুয়া উরাও এবং সমরা উরাও পলাতক রয়েছে।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, রফিকুল ইসলাম জমি দেখাশুনা ও কাপড়ের ব্যবসার সুবাদে গোমস্তাপুর উপজেলার কাসরইল লাধুপাড়া গ্রামে যাতায়াত করতো। গত ২৩ নভেম্বর ২০১০ সালে ঘটনার দিন এলাকার একটি চায়ের দোকানে আড্ডা দেয়ার সময় সন্ধ্যা সোয়া ৫টার দিকে আসামিরা পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ধারালো অস্ত্র দিয়ে রফিকুলকে জবই করে হত্যা করে। পরে ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ গিয়ে লাশ উদ্ধার করে।

এ ঘটনায় নিহত রফিকুলের ভাই আব্দুল জাব্বার বাদী হয়ে গোমস্তাপুর থানায় ওই দিনই একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরে ২০১১ সালের ১২ সেপ্টেম্বর এই মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই বানী ঈসরাইল আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

সাক্ষ্য প্রমাণাদি শেষে আজ সোমবার দুপুরে অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিজ্ঞ বিচারক নিরঞ্জন উরাওকে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ ও অপর ৫ জনকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড, প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে আরো ১ বছর সশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেন।

সরকারি পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট আঞ্জুমান আরা এবং আসামি পক্ষে ছিলেন এ্যাডভোকেট আব্দুর রাজ্জাক খান ও এম এ ওয়াদুদ।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

ব্রেকিং নিউজঃ