জীবনে বেঁচে থাকার জন্য যুদ্ধ এভাবেই করছি

0

আত্মসম্মান জলাঞ্জালি দিয়ে সাহায্যের জন্য অন্যের দুয়ারে দুয়ারে ছুটে চলা স্বাভাবিক পন্থা। কিন্তু এর ব্যতিক্রম দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে আমের রাজধানী চাঁপাইনবাবগঞ্জ এর রানীহাটি বাজারের ৭০ বছরের বৃদ্ধ মোহাম্মদ কালাম। সংসার জীবনে স্ত্রীসহ ২ ছেলে ও মেয়ে রয়েছে তাঁর। একটি মেয়ে লেখাপড়া করছে আর সবার বিয়ে হয়ে যে যার মত সংসার নিয়ে ভালই আছে।

কিন্তু সে সব সন্তান খোঁজ রাখে না বৃদ্ধ মা-বাবার। তাই ভিক্ষার ঝুলি হাতে না নিয়ে বৃদ্ধ-বৃদ্ধা মিলেই শুরু করেন চাঁপাইনবাবগঞ্জের ঐতিহ্য কলাই রুটি বিক্রি। ফেরি করে কলাই রুটি বিক্রি মনে হয় রানীহাটিতেই দেখতে পাওয়া যাবে। অন্য কোথাও নয়।

গত শনিবার সন্ধ্যার পর রানীহাটি বাজারে চোখে পড়ে এক বৃদ্ধ ডালি কোমরে নিয়ে কি যেন বিক্রি করছে। সেটা আবার গরম কাপড় দিয়ে পুরোটা ঢাকা। কৌতুহল বাড়তেই লক্ষ করলাম বৃদ্ধ কালাম কোমরের ডালিটা টেবিলে নামিয়ে উপর থেকে কাপড়টা সরাতেই বেরিয়ে আসল গরম গরম প্রায় ২০ থেকে ২৫টি কলাই রুটি। সাথে তেল, লবন, পেয়াজও থাকে। দাম ১০ টাকা প্রতি রুটি। এবার বুঝতে পারলাম ডালির উপরটা কেন গরম কাপড় দিয়ে ঢেকে রাখা হয়েছে। রুটি গরম রাখার প্রাকৃতিক নিয়ম।

প্রশ্ন করলাম কলাই রুটি বিক্রি করে সংসার, জীবন-যাপন কেমন চলছে। মুখ ভর্তি পাঁকা দাড়ি মুখটা আমার দিকে কিছুক্ষণ তাকিয়ে থেকে বলল, জি বাবা কলাই রুটি বিক্রি করেই সব চলছে। সকালে আর সন্ধায় ফেরি করে বাজারের আশপাশেই ঘুরাঘুরি করি। আল্লাহর রহমত সব বিক্রি হয়ে যায়।

রুটি কে তৈরি করে জানতে চাইলে বৃদ্ধ মোহাম্মদ কালাম জানান, বাড়িতে আমার স্ত্রী রুটি বানায় আর আমি বাজারে বিক্রি করি। দু’জনের পরিশ্রমে জীবনে বেঁচে থাকার জন্য যুদ্ধ এভাবেই করছি। ছেলেরা কিছু দেয় না বলতেই, তিনি বললেন, ওরা যে যারমত আছে। আমাদের দু’জনের কেউ খোঁজ নেয় না। তাইত এ বয়সেও খেটে রোজগার করছি। রোজগার করতে পারার মধ্যে আলাদা আনন্দ আছে।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

ব্রেকিং নিউজঃ